সংবাদ শিরোনাম

ছাত্রলীগ নেতার প্যান্ট চুরির ভিডিও ভাইরাল!পাটগ্রামে ইউএনও’র উপর হামলা, আটক ৬আগের সব রেকর্ড ভেঙ্গে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু ৮৩ জনেরশফী হত্যা মামলা: মামুনুল-বাবুনগরীসহ ৪৩ জনকে অভিযুক্ত করে প্রতিবেদনখালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় সারাদেশে দোয়া কর্মসূচিরোহিঙ্গা শিবিরে ফের অগ্নিকান্ডসালথায় তান্ডব: এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগের সত্যতা মিলেনিশাহজাদপুরে কৃষকদের মাঝে হারভেস্টার মেশিন বিতরণচাঁদপুরে গণমাধ্যম সপ্তাহের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পেতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপিশ্রমিকদের যাতায়াতের ব্যবস্থা না করলে আইনি পদক্ষেপ : শ্রম প্রতিমন্ত্রী

  • আজ ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

সন্মেলনে ২৩ জনের নাম ঘোষণা, কে পেলেন কোন পদ ?

৬:৪৬ অপরাহ্ন | রবিবার, অক্টোবর ২৩, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর- গুঞ্জন ছিল নানা নিকেশে। সময়ের ব্যবধানে তা ক্রমশই উত্তেজনায় রূপ নেয়। টান টান উত্তেজনা ছিল দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের মাঝেও। গণমাধ্যমসহ সামাজিক মাধ্যমেও আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্ব নিয়ে আলোচনার কমতি ছিল না। সেই উত্তেজনা ও সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটল রোববার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে।

imagesঐতিহ্যবাহী দল আওয়ামী লীগের ৮৩ সদস্যের কেন্দ্রীয় কমিটির মধ্যে ২৩ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। দলের সভাপতি পদে শেখ হাসিনা পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। প্রথমবারের মতো আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ওবায়দুল কাদের।

রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে কাউন্সিল অধিবেশনে কাউন্সিলরদের কণ্ঠভোটে তারা নির্বাচিত হন। এই কমিটিই আগামী সংসদ নির্বাচনে দলের দায়িত্বে থাকবে। এর আগে গতকাল শনিবার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধন করেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা।

দলের ২০ তম জাতীয় সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সভাপতি হিসেবে নাম প্রস্তাব করেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। এ সময় উপস্থিত কাউন্সিলররা কণ্ঠভোটে সম্মতি জানান। অন্যদিকে গত কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামই সাধারণ সম্পাদক পদে ওবায়দুল কাদেরের নাম প্রস্তাব করেন। এরপর তা সমর্থন করেন জাহাঙ্গীর কবীর নানক। আর কোনো নাম প্রস্তাব না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ভোটাভুটি হয়নি সাধারণ সম্পাদক পদেও।

কমিটির ১৯ সদস্যের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যের মধ্যে ১৬ জনের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদাধিকার বলে সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য। ওবায়দুল কাদের আগের কমিটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ছিলেন। সভাপতিমণ্ডলীর বাকি ১৪ জনের মধ্যে আটজন পুরোনো সদস্য। এঁরা হলেন সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, মোহাম্মদ নাসিম, কাজী জাফরউল্লাহ, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, সাহারা খাতুন, মোশাররফ হোসেন। নতুন ছয় সদস্য হলেন নুরুল ইসলাম নাহিদ, আবদুর রাজ্জাক, ফারুক খান, আবদুল মান্নান খান, রমেশ চন্দ্র সেন ও পীযূষ ভট্টাচার্য। বাকি তিনটি পদ ফাঁকা রাখা হয়েছে।

নতুন করে সভাপতিমণ্ডলীর পদে যুক্ত হয়েছেন ছয়জন। বিগত কমিটির সভাপতিমণ্ডলী থেকে বাদ পড়েছেন নূহ–উল–আলম লেনিন।

চারটি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদের তিনটিতে পুরোনোরাই বহাল আছেন। এঁরা হলেন মাহবুব উল আলম হানিফ, দীপু মনি ও জাহাঙ্গীর কবির নানক। এর সঙ্গে নতুন করে যুক্ত হয়েছে আবদুর রহমান।

কোষাধ্যক্ষ পদে আগের এইচ এন আশিকুর রহমানই বহাল আছেন।

আজকের সম্মেলন থেকে জানানো হয়েছে, বাকি ৬০ পদ সভাপতি শেখ হাসিনা সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতিমণ্ডলীর সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক করবেন।