• আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ইলিশ ধরার অপরাধে ৫ জেলে গ্রেপ্তার : জেলে পরিবারের ক্ষোভ প্রকাশ

৩:০১ অপরাহ্ন | সোমবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

খন্দকার রবিউল ইসলাম, রাজবাড়ী প্রতিনিধি: পেটের দায়ে নিশেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধভাবে রাজবাড়ীর পদ্মা নদীতে ইলিশ মাছ ধরার অপরাধে ৫ জন জেলেকে কারেন্ট জাল ও মাছ সহ গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

gr

এনডিসি মোঃ আরিফুল হক এর নেতৃত্বে মৎস কর্মকর্তা বিজন কুমার নন্দী সহ পুলিশের একটি টিম পদ্মা নদীতে অভিযান পরিচালনা করে ১২ হাজার মিটার কারেন্ট জাল ও ৪৫ কেজি ইলিশ মাছ সহ ৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে বেলা ১১টার দিকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এনডিসি মোঃ আরিফুল হক মিদুল ৫ জন জেলেকে ৫ হাজার টাকা করে মোট ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

তবে স্থানীয় জেলের স্বজনরা বলেছেন, আমাদের পেটে ভাত নেই সেই খবর কেউ রাখে না মাছ মারবে না তো কি করবে সরকার কি আমাদের খাবারের ব্যবস্থা করছে..? যদি আমাদের খাবারের বব্যস্থা করতো আমাদের কেউ মাছ ধরতে যেত না আবার ধরে ধরে ১ মাস করে জেল দিচ্ছে। এভাবে আমাদের এক মাত্র উপারর্জনকারীকে যদি জেল জরিমান করে জেলে রাখে আমারা পরিবারের মানুষ গুলো না খেয়ে মরা ছারা আর কোন উপায় নাই।

তারা আরো বলেন, আপনারা সাংবাদিকরা শুধু আমাদের জেলেদের বিষয়ে বড় বড় করে লিখছেন যে জেলেরা সরকারের নিশেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ মাছ ধরছে কিন্তু কেন ধরছে এটা কোন সাংবাদিক লিখছে না কেন আমারা গরীব বলে..? কই সরকার নাকী জেলেদের জন্য সাইকেল, চাউল আরো টাকা দিয়েছে কই কোথায় সে গুলো আমারা তো পেলাম না তাহলে কোথায় গেলো সেই অনুদান…? এভাবেই আঙ্গুল দিয়ে বুঝিয়ে দিলেন তাদের মনের কষ্ট..আসলেই তো ঠিক বলেছে এই মানুষ গুলো।

এ বষিয়ে রাজবাড়ী সদর উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা বিজন কুমার নন্দী সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, রাজবাড়ীতে কোন জেলেকে সরকারী ভাবে কোন অনুদান বা সহযোগিতা দেওয়া হয়নি কারন সরকার থেকে রাজবাড়ীর জন্য কোন বরাদ্ধ দেওয়া হয়নি। তবে আমারা জেলেদের কথা চিনতা করে সরকারের কাছে আবেদন করেছি আশা করছি তাদের জন্য কিছু বরাদ্ধা পাওয়া যাবে আর সেটা পাওয়া গেলেই আমারা জেলেদের কিছু দিতে পারবো।