সংবাদ শিরোনাম

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে সড়কে দীর্ঘ যানজট!৬ বছরের ছেলে সাহেলের প্রথম রোজা, আপ্লুত মাশরাফিকোরআন তেলাওয়াত, ইবাদতে প্রথম রোজা কেটেছে খালেদারভাঙ্গায় রাতের আঁধারে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর-লুটপাট : আহত-১৫বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধেমহাসড়ক যানশূন্য, শিমুলিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ‘তালা ভেঙ্গে মসজিদে তারাবি পড়ার চেষ্টা্’‌, পুলিশের বাধায় সংঘর্ষে মুসল্লিরা‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তার

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২২ পিস্তল, ৪৫ ম্যাগজিন ও ১৩৬ রাউন্ড গুলিসহ আটক ২

৫:৩৯ অপরাহ্ন | সোমবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৬ দেশের খবর, রাজশাহী

জাকির হোসেন পিংকু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের শংকরবাটী বটতলাহাট এলাকার একটি বাড়ী থেকে থেকে ২২টি বিদেশী পিস্তল, ৪৫ টি ম্যাগজিন ও ১৩৬ রাউন্ড পিস্তলের গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জেলা পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলামের নেতৃত্ত্বে সোমবার দূপুর সোয়া ২টা থেকে ঘন্টাব্যাপী অভিযানে বাড়ির ভিতরের দিকের একটি ঘরের ফলস ছাদের মধ্যে বস্তায় রাখা এই বিপুল সংখ্যক আগ্নেযাস্ত্র উদ্ধার করা হয়। অভিযানে আটক করা হয় বাড়ীর মালিক শাহীনের সৎ মা রোকেয়া (৪৬) ও তাঁর চাচাত ভাই আবদুল হকের ছেলে শাকিল (২৫) নামে দুইজনকে। তাঁরা পাশেই বসবাস করেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বাড়িটির মালিক সেনাবাহিনীতে কর্মরত মৃত আরেস্তানের ছেলে শাহীন (৪৪)। তিনি বাড়িটি ভাড়া দিয়েছিলেন। তবে ভাড়াটিয়ার পরিচয় এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ভাড়াটিয়া সম্পর্কে তেমন কোন তথ্যও দিতে পারেননি এলাকাবাসী। নতুন পাকা ফ্ল্যাট বাড়িটি ছাগলের খামার হিসেবে ব্যবহার করছিল ভাড়াটিয়া। বাড়ীটি থেকে ২৯টি ছাগলও জব্দ করা হয়।dsc07051

পুলিশ সুপার ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থলে এক সংক্ষিপ্ত প্রেস ব্রিফিং এ জানান, তাঁদের কাছে আগে থেকেই খবর ছিল সংঘবদ্ধ চক্রের অস্ত্র চালানের ব্যাপারে। এ ব্যাপারে তাঁরা নজরও রাখছিলেন। ঘটনায় জড়িতদের সনাক্ত করা গেছে বলে জানান পুলিশ সুপার। তবে ভাড়াটিয়া ও ঘটনার হোতাদের পরিচয় এখনও প্রকাশ করেনি পুলিশ। উদ্ধার অভিযানে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুব আলম খান, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর) আবুল কালাম শাহিদ, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (নবাবগঞ্জ সার্কেল) ওয়ারেছ মিয়া, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাযহারুল ইসলাম, গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক হামিদুর রশীদ উপস্থিত ছিলেন। ঘটনার পূর্ণ তদন্ত শুরু হয়েছে।