ফেসবুকে ফেক আইডি থেকে যেভাবে সতর্ক থাকবেন

৬:১৫ অপরাহ্ন | সোমবার, অক্টোবর ২৪, ২০১৬ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

fbprof3_1242_8400


প্রযুক্তি ডেস্ক:

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হিসেবে সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হচ্ছে ফেসবুক। বর্তমানে সেখানে প্রায়ই ভুয়া বা নকল নাম ঠিকানা দিয়ে প্রতারণার ঘটনা ঘটছে। ফেসবুকে আলাপ থেকে প্রেম, প্রতারণা, অবশেষে আত্মহত্যা এমন ঘটনা এখন প্রায়ই শোনা যায়। এ সমস্ত ফেক প্রোফাইলের আড়ালে অপরাধমূলক কাজে ভরে গেছে সোশ্যাল মিডিয়াঃ

আর তাই এসব ভুয়া আইডি থেকে সাবধান থাকতে নিচের লেখাগুলো অনুসরণ করুন-

* প্রোফাইল ভালো করে পড়ুন। কী করেন, কোথায় থাকেন, কোথায় পড়াশোনা করেছেন সে বিষয়ে স্পষ্ট তথ্য আছে কিনা দেখুন। কোনও সংস্থার নাম বা ইউনিভার্সিটির নাম নিয়ে সন্দেহ হলে গুগলে খুঁটিয়ে দেখুন। বয়স খুব অল্প অথচ নিজেকে প্রফেসর বা সিইও বলছেন, এমন মানুষ ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠালে অবশ্যই ভেবে দেখবেন। প্রোফাইল আকর্ষণ করতে এরা অনেক কিছু করে থাকে।

* অচেনা কাউকে বন্ধু করার আগে দ্বিতীয়বার ভাবুন। ফ্রেন্ড লিস্টে বন্ধু সংখ্যা বাড়ানোর প্রতিযোগিতায় হুট-হাট কাউকে অ্যাড করবেন না। অচেনা রিকোয়েস্ট এলে প্রশ্ন করুন। জানতে চান তিনি কেন আপনাকে রিকোয়েস্টপাঠালেন। উত্তর শুনে বিশ্বাসযোগ্য মনে হলে তবেই অ্যাকসেপ্ট করুন।

* অল্প আলাপেই নিজের ফোন নম্বর, ইমেইল অ্যাড্রেস দিয়ে দিবেন না। যদি দেখেন প্রথম দিনই তিনি আপনার নম্বর চাইছেন তবে অবশ্যই সতর্ক হোন।

* যদি শুরু থেকেই আপনার প্রতি ভালোলাগা প্রকাশ করেন বা প্রেম নিবেদন করেন তাহলে নির্দ্বিধায় তাকে ফ্রেন্ড লিস্ট থেকে বাদ দিন। ফেক প্রোফাইল থেকে এই ধরনের প্রস্তাব প্রায়ই আসে।

* কোনো প্রকার অশালীন প্রস্তাব দিলে অবিলম্বে ব্লক করতে হবে। যদি চ্যাট করতে করতে আপনাকে ছবি পাঠাতে বলেন বা আপনার সব ছবি লাইক করতে থাকেন তাহলে বুঝবেন মানুষটি বিপদজনক। এদের ব্লক করে রাখাই ভালো।

* ফ্রেন্ড-লিস্ট খুঁটিয়ে দেখুন। তার বন্ধুরা কী বেশির ভাগ স্থানীয় নাকি বিদেশি? যদি দেখেন বন্ধুরা অধিকাংশই বিদেশি তাহলে অবশ্যই মানুষটা সন্দেহজনক।

* মিউচুয়াল ফ্রেন্ডে চেনা বন্ধু থাকলেও সতর্ক থাকুন। চেনা বন্ধুকে জিজ্ঞাসা করুন আপনাকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠানো মানুষটিকে চেনেন কিনা। বিশ্বাসযোগ্য উত্তর পেলে তবেই অ্যাড করুন।

* ঠিক কী ধরনের জিনিস পোস্ট করেন তিনি? অধিকাংশই কি কোনো ছবি বা কোটেশন? কোনো মৌলিক পোস্ট রয়েছে কিনা খুঁটিয়ে দেখুন। যদি থাকে তবে তা নিয়ে বন্ধুরা মন্তব্য করেছেন কিনা, লাইক করেছেন কিনা, শেয়ার করেছেন কিনা অবশ্যই দেখে নিন।

* যদি এরইমধ্যে অ্যাড করে থাকেন তবে খেয়াল রাখুন তিনি কী বলছেন সেই দিকে। কথাবার্তা কি অসঙ্গত? নিজের সম্পর্কে অতিরিক্ত তথ্য দেন নাকি একেবারেই দেন না। এই দু’টিই কিন্তু সন্দেহজনক। সন্দেহ হলে পাল্টা প্রশ্ন করুন।