• আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘চায়ের কাপে কৌতুহলী ঝড়ের’ সব উত্তর জানিয়ে দিলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী !

১১:০৬ পূর্বাহ্ন | মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৫, ২০১৬ Breaking News, আলোচিত বাংলাদেশ, স্পট লাইট

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর-

পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হওয়া স্বত্বেও সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম কেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হলেন না? এ প্রশ্ন এখন অনেকের মনে । সম্মেলন পরবর্তি সময়ে রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের মধ্যে এসব প্রশ্ন আর কৌতুহলে ঝড় উঠছে চায়ের কাপে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দুই দফা দায়িত্বপালন শেষে এবার সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য (প্রেসিডিয়াম মেম্বার) নির্বাচিত হয়েছেন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। তবে এই শেষ নয়, আরও বিশেষ কোন দায়িত্বভার তিনি অচিরেই পেতে চলেছেন!  ”সজ্জন রাজনীতিক সৈয়দ আশরাফকে দলের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে সরে যেতে হলেও তাকে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে আনতে যাচ্ছেন সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা” এমন জল্পনা আর সম্ভাবনা থেকে চাউর হয়েছে রাজনীতির মাঠ ।

somoyer-konthosor-asraf

নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের এমন হাজারো জল্পনা-কল্পনা কৌতুহল আর  প্রশ্নের সব উত্তর জানিয়ে দিয়েছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
অষ্টমবারের মতো দলীয় সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর বিদায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের সৈয়দ আশরাফুল ইসলামকে আমি আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। সে আমার ছোট ভাইয়ের মতো। শহীদ পরিবারের সন্তান হিসেবে সে মন-প্রাণ দিয়ে এই সংগঠনকে ভালোবেসেছে, দেশকে ভালোবেসেছে। আজকে সে নিজে স্বতঃস্ফুর্তভাবে ওবায়দুল কাদেরের নাম প্রস্তাব করেছে।’

প্রসঙ্গত, সাধারণ সম্পাদক পদ ছ‌েড়ে দ‌েওয়া প্রসঙ্গ‌ে সাংবাদ‌িকদের প্রশ্ন‌ের কোন জবাব দ‌েনন‌ি সদ্য ব‌িদায়ী সাধারণ সম্পাদক স‌ৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। স‌োমবার দুপুরে মন্ত্র‌িসভার ব‌ৈঠক শ‌েষে ব‌ের হওয়ার সময়  সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব‌ে তিনি শুধু বল‌েন, ‘সময় হল‌ে এ ব‌িষয়‌ে পরে কথা বলব‌ো।’

অন্যদিকে, আওয়ামী লীগ‌ের নব ন‌ির্বাচ‌িত সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদ‌েরও মন্ত্র‌িসভার ব‌ৈঠক শ‌েষে এ বিষয়ে সাংব‌াদ‌িকদ‌ের কাছ‌ে কোন‌ো মন্তব্য করে‌নন‌ি। মন্ত্র‌িসভার ব‌ৈঠক শেষে সরাসরি ত‌িনি ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে পূর্ব ন‌ির্ধারিত সাংবাদ‌িক সম্মেলনে যোগ দেন।

আওয়ামী লীগের কাউন্সিল শেষ হওয়ার পরে নীরবেই অনুষ্ঠানস্থল ত্যাগ করেন সৈয়দ আশরাফ। উপস্থিত সাংবাদিকরা কমিটি গঠন নিয়ে বক্তব্য জানতে চাইলেও তিনি সংবাদ মাধ্যমকে এড়িয়ে যান। তার এ নীরবতাও অনেক জল্পনার সৃষ্টি করেছে। জল্পনার বিষয় ছিল, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য থেকে আগামী বছরেই সৈয়দ আশরাফ দেশের রাষ্ট্রপতি হতে পারেন।

উল্লেখ্য, আগামী বছর বর্তমান রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তিনি দুবার রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়েছেন। আগামী বছর তার পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

উল্লেখ্য, দলের ২০ তম জাতীয় সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে সভাপতি হিসেবে নাম প্রস্তাব করেন দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। এ সময় উপস্থিত কাউন্সিলররা কণ্ঠভোটে সম্মতি জানান। অন্যদিকে গত কমিটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামই সাধারণ সম্পাদক পদে ওবায়দুল কাদেরের নাম প্রস্তাব করেন। এরপর তা সমর্থন করেন জাহাঙ্গীর কবীর নানক। আর কোনো নাম প্রস্তাব না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ভোটাভুটি হয়নি সাধারণ সম্পাদক পদেও।

somoyer-konthosor-asraf-october

গত দুই মেয়াদে সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে পালনকারী সৈয়দ আশরাফ এবারও দলের সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচিত ছিলেন। তবে জাতীয় সম্মেলন শুরুর ‍দুই দিন আগে হঠাৎ করেই ওবায়দুল কাদেরের নাম শোনা যায়। যদিও মাস খানেক আগে রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, এই পদে তিনি প্রার্থী নন।

রাষ্ট্রপতি হতে চলেছেন সজ্জন রাজনীতিক সৈয়দ আশরাফ ! জল্পনা, না সত্যি ?