সংবাদ শিরোনাম

৬ বছরের ছেলে সাহেলের প্রথম রোজা, আপ্লুত মাশরাফিকোরআন তেলাওয়াত, ইবাদতে প্রথম রোজা কেটেছে খালেদারভাঙ্গায় রাতের আঁধারে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর-লুটপাট : আহত-১৫বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধেমহাসড়ক যানশূন্য, শিমুলিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ‘তালা ভেঙ্গে মসজিদে তারাবি পড়ার চেষ্টা্’‌, পুলিশের বাধায় সংঘর্ষে মুসল্লিরা‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘প্রতিটি বিভাগে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় করা হবে’

১:১১ অপরাহ্ন | বুধবার, অক্টোবর ২৬, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর- জনগণের দোরগোড়ায় উন্নত চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে দেশের সব বিভাগে একটি করে মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

150112144459_female-leaders_dhub_hasinaবুধবার রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট অডিটোরিয়ামে আয়োজিত বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস (বিসিপিএস) এর ১৩তম সমাবর্তনে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জনগণের দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে কমিউনিটি ক্লিনিক তৈরি করে দিয়েছি আমরা। ১৯৯৬ সালে আমরা এগুলো তৈরি করেছিলাম। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত এগুলো বন্ধ করে দিয়েছিল।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মাতৃকালীন ছুটি ৬ মাস করে দিয়েছি। বাংলাদেশ ইতিমধ্যে পোলিওমুক্তির সনদ পেয়ে গেছে। এখন বাংলাদেশ পোলিওমুক্ত, টিটেনাসমুক্ত। আমরা একদিকে খাদ্যনিরাপত্তা নিশ্চিত করেছি, আবার পুষ্টির দিকেও লক্ষ রেখেছি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে। এখন দেশের মানুষের গড় আয়ু ৭১ বছর হয়েছে। দেশে শিশুমৃত্যু হার, মাতৃমৃত্যু হার কমিয়েছি। আমাদের লক্ষ্য এসডিজি বাস্তবায়ন করা। বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাওয়া।’

তিনি বলেন, ‘ইতিমধ্যে আমরা কমিউনিটি ক্লিনিক, উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্র তৈরি করে দিয়েছি। স্থানীয় পর্যায়ে যাতে মানুষ সেবা পেতে পারে আমরা সেই কাজ করেছি। এখন বিনা মূল্যে অনেক ওষুধ দেওয়া হচ্ছে। দেশের মানুষ এখন মোবাইল ফোনের মাধ্যমে চিকিৎসাসেবা পাচ্ছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সারা দেশে আমরা সার্ভে করে হাসপাতালগুলোতে শয্যাসংখ্যা বৃদ্ধি করেছিলাম। আমরা উল্লেখযোগ্য হারে ডাক্তার, নার্স নিয়োগ দিয়েছি। থাইল্যান্ডসহ বিভিন্ন দেশ থেকে নার্সদের প্রশিক্ষণ দিয়ে নিয়ে আসা হচ্ছে। আমরা সরকারি কর্মকর্তা, পুলিশদের জন্য আলাদা হাসপাতাল করে দিয়েছি।’

তিনি চিকিৎসকদের উদ্দেশে বলেন, ‘চিকিৎসা পেশা নয়, এটা মহান ব্রত। আমরা চাই রোগীদের চিকিৎসাসেবা ভালোভাবে দেবেন। চিকিৎসকের মুখের কথায়ও অর্ধেক রোগ ভালো হয়ে যায়। মানুষের সেবা করার মনোভাব নিয়ে চিকিৎসা করবেন।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা ক্ষমতায় এসে মোবাইলকে উন্মুক্ত করে দিয়েছিলাম। কারণ এর আগে বিএনপি সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিজের ব্যবসা টিকিয়ে রাখার জন্য ব্যবসা করতেন। আমরা এটা উন্মুক্ত করার পর জনগণ মোবাইলে চিকিৎসা সেবা নিতে পারে।’