• আজ রবিবার। গ্রীষ্মকাল, ৫ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ১৮ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ১০:৪২মিঃ

‘র‌্যাব ও পুলিশের দ্বিমুখী বক্তব্যে ষড়যন্ত্র ফাঁস’

৩:২৯ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৭, ২০১৬ Breaking News, জাতীয়

স্টাফ রিপোর্টার, সময়ের কণ্ঠস্বর – ইতালীয় নাগরিক চেজারে তাভেল্লা হত‌্যাকাণ্ড নিয়ে র‌্যাব ও পুলিশের দ্বিমুখী বক্তব্যে এই মামলায় বিএনপি নেতা এম এ কাইয়ুমকে ‘ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ফাঁসানোর’ প্রমাণ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘রক্তাক্ত ২৮ অক্টোবর এবং আজকের প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক এ আলোচনাসভার আয়োজন করে বাংলাদেশ ইয়ুথ ফোরাম।

রিজভী আহমেদ বলেন, ”র‍্যাবের ডিজি বলছেন, তাভেল্লা হত্যার সাথে নিউ জীমবির নেতারা জড়িত। আর তারপরই প্রেস ব্রিফিং করে ডিবির জয়েন্ট কমিশনার বলছেন, না আমরা তদন্ত করে দেখেছি, এটার সঙ্গে কাইয়ুম সাহেব ও তার ভাইরা জড়িত। বাহ!”

”এখন এরাই তাদের বিতরক তৈরি করেছে। এই যে প্রকাশ হয়ে পড়লো, ফাঁস হয়ে গেলো যে, এটা তাদের একটা ষড়যন্ত্র। তাভেল্লা হত্যাকাণ্ডে বিএনপি নেতা কাইয়ুম-মতিনকে জড়িত করা- এটা হচ্ছে একটা ষরযন্ত্র। আজকে তাদের বিতর্কের মধ্য দিয়ে প্রমাণ হয়ে গেলো”

সরকার তার নিজের স্বার্থেই জঙ্গি তৈরি করছে দাবি করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‌‌‘আজকে দেশে যে এত খুন, গুম, হামলা- এগুলো থেকে জনগণের চোখ জঙ্গি ইস্যুতে নিয়ে যাওয়ার জন্য সরকারই জঙ্গি তৈরি করছে।’

তিনি বলেন, ‘বুধবার প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘অপরাধীরা যাতে ক্ষমতায় না আসতে পারে সে ব্যবস্থা করতে হবে। নিশ্চয় বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে এ কথা বলেছেন তিনি। তার এ কথার মধ্য দিয়ে প্রমাণিত হয় সরকার গভীর ষড়যন্ত্রের পথে হাটছে।’

rizvi-bnp-thurs

এসময় রিজভী আহমেদ প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে একটি নির্বাচন দিয়ে দেখেন না- জনগণ কাকে অপরাধী বলে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী দিয়ে হুমকি দেখান, কিন্তু জনগণের কাছে আসেন না। জনগণ আপনাদের অপরাদের কথা কাউন্ট করছে।’

সরকারের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘ক্ষমতাসীনদের শাসনমালে আদালতে যাওয়া যায় না, বিদেশি তাবেদার এই সরকারের পতন ছাড়া গণতান্ত্রিক শক্তির মুক্তি নেই।’

দেশে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নেই দাবি করে তিনি বলেন, ‘একুশে টিভির সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম এবং আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে সরকার আটকে রেখেছে শুধু সত্য বলার কারণে।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মুহাম্মদ সাইদুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আহসান হাবিব লিংকন, স্বাধীনতা ফোরামের সভাপতি আবু নাসের মো. রহমতউল্লাহ, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য খালেদা ইয়াসমিন, অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম, ফোরকান আলম প্রমুখ।