• আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘ও ফাঁদে পা দিতে পারে, কিন্তু আমি কোনও ফাঁদে পা দেব না’

৮:৪৮ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৭, ২০১৬ Breaking News, ফিচার

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- সম্প্রতি আশুলিয়ায় জঙ্গিবিরোধী অভিযানে নিহত নব্য জেএমবি নেতা আবদুর রহমান ওরফে সারোয়ার জাহানের সাংগঠনিক অবস্থানের বিষয়ে দেওয়া বক্তব্য নিয়ে পাল্টা কোনো বক্তব্য দেবেন না বলে জানিয়েছেন র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘আমি যা বলেছি, তথ্যপ্রমাণ নিয়েই বলেছি। এ নিয়ে বিভ্রান্তির কিছু নেই।’ তিনি বলেন, ‘আমি কোনও পাল্টা মন্তব্য করব না। ও ফাঁদে পা দিতে পারে, কিন্তু আমি কোনও ফাঁদে পা দেব না।

benjirপুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলামকে ইঙ্গিত করে বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘ও আমার জুনিয়র অফিসার। আমার স্নেহের। ওর বিরুদ্ধে কিছু বলতে চাই না।’

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে সাক্ষাতের পরে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

সম্প্রতি ইতালির নাগরিক সিজার তাভেল্লা হত্যাকাণ্ড ও নব্য জেএমবির কথিত বাংলাদেশি প্রধান সারোয়ার জাহানকে নিয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দুই সংস্থা- র‌্যাব ও কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের পক্ষে দেওয়া দুরকম বক্তব্য নিয়ে নানামুখী আলোচনা চলছে। প্রশ্ন উঠেছে কার বক্তব্য সঠিক। এরমধ্যেই নিজেদের অবস্থানে অনড় থেকে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ এ মন্তব্য করলেন।

গত শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের মহাপরিচালক জানান, আশুলিয়ায় ৮ অক্টোবর অভিযানের সময় ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে নিহত আবদুর রহমানই নব্য জেএমবির প্রধান শায়খ আবু ইব্রাহিম আল হানিফ। তার মূল নাম সারোয়ার জাহান।

ওইদিন তিনি জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জের এ জঙ্গির নেতৃত্বে অন্তত ২৪টি হামলা চালানো হয়েছে। এর মধ্যে গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁ এবং ঢাকা ও রংপুরে দুই বিদেশি নাগরিক হত্যার ঘটনাও রয়েছে। নব্য জেএমবির প্রধান বা আমির ছিল সে। তার সাংগঠনিক নাম আবু ইব্রাহিম আল হানিফ।

এরপর বুধবার পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের বলেন, সারোয়ার জাহান ছিল নব্য জেএমবির তৃতীয় সারির নেতা। তাভেলা হত্যায় জঙ্গিগোষ্ঠী নয়, বরং যাদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেওয়া হয়েছে, তারাই জড়িত। তাদের মধ্যে ৭ জন বিএনপি নেতা রয়েছেন।

মনিরুলের এ বক্তব্যের পর সরকারের উচ্চ পর্যায়েও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। এরই প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার সকালে র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ তার বক্তব্যের স্বপক্ষে তথ্য-প্রমাণাদি নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে সাক্ষাত করেন।