• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ১২:১৪মিঃ

মাইলফলকের ম্যাচে ভালো খেলার প্রত্যয় মুশফিকের

⏱ | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ২৭, ২০১৬ 📁 খেলা, স্পট লাইট

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক – আগামীকাল শুক্রবার মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড। দুই ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট ম্যাচে নিজের ৫০তম টেস্ট খেলতে নামবেন অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। মাইলফলকের এই ম্যাচে নিজে ভালো খেলে দলকে ভালো কিছু উপহার দিতে চান বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক।

তৃতীয় বাংলাদেশি হিসেবে ৫০তম টেস্ট খেলতে নামছেন মুশফিক। তার আগে সাবেক দুই অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল (৬১) ও হাবিবুল বাশার সুমন (৫০) এই মাইলফলক স্পর্শ করেছেন। আশরাফুল বর্তমানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে আছেন। আর হাবিবুল বাশার তো অনেক আগেই নিয়েছেন অবসর। নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ায় আশরাফুলের অবশ্য ফের ক্রিকেটে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে।

মুশফিকের পরে টেস্ট অভিষেক হলেও বর্তমান ইংলিশ অধিনায়ক খেলে ফেলেছেন ১৩৪টি টেস্ট। সেখানে মুশফিক মাত্র ৫০তম টেস্ট খেলতে নামছেন। বাংলাদেশ যেহেতু টেস্ট খেলার সুযোগ বেশি একটা পায় না তাই এটাকে অনেক বড় ব্যাপার বলেই মানছেন মুশফিক। বলেছেন, ‘ভালো লাগবে যদি নিজে ভালো কিছু করতে পারি, আরো ভালো লাগবে দল ভালো ‍কিছু করলে।’

২০০৫ সালে ইংল্যান্ড সফরে দলে জায়গা পেয়ে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে খেলার সুযোগ পাননি। দ্বিতীয় ম্যাচে সাসেক্সের বিপক্ষে হোভে খেললেন ১৮ ও ৬৩ রানের ইনিংস। পরের ম্যাচে নর্দাম্পটনশায়ারের বিপক্ষে অপরাজিত ১১৫। সদ্য কৈশোর পেরুনো উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানকে নিয়ে পড়ে গেল হইচই। ১৭ বছর ৩৫১ দিন বয়সে টেস্ট অভিষেক হয় মুশফিকের।

অভিষেকে শুধু ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলে দুই ইনিংসে ১৯ ও ৩ রান করে হারিয়েছিলেন জায়গা। আবার টেস্ট খেলার সুযোগ পেলেন পরের বছর শ্রীলংকার বিপক্ষে। নিজ শহর বগুড়ায় সেই টেস্টে ২ ও ০ করার পর আবার বাদ।

mushfiq

আরেকটি টেস্ট খেলতে অপেক্ষা করতে হয়েছে ১৬ মাস। এবার শ্রীলংকা সফর। সেবার প্রথম টেস্টে একাদশের বাইরে ছিলেন। বিবর্ণ খালেদ মাসুদের জায়গায় সুযোগ মিলল সফরের দ্বিতীয় টেস্টে। উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে প্রথমবার। কলম্বোর পি সারা ওভালে সেই ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ৮০ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি মুশফিককে।

মুশফিক তৃতীয় বাংলাদেশি হিসেবে ৫০তম টেস্টের মাইলফলক স্পর্শ করলেও প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে শততম টেস্ট খেলার সুযোগ আছে মুশফিকের সামনে। কেননা সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী বছর ১১টি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। তাই আশরাফুলকে আগামী বছরই ধরে ফেলার সুযোগ পাচ্ছেন মুশফিক। তাছাড়া বয়সও খুব বেশি নয়, মাত্র ২৯। তাই প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে শততম টেস্টের মাইলফলক স্পর্শ করতেই পারেন মুশফিক।

মুশফিক অবশ্য এখনই অতো দূরে তাকচ্ছেন না। নিজের পারফর্মের দিকেই বেশি নজর তার। মাইলফলকের ম্যাচে নিজে ভালো খেলে দলকে জয় উপহার দেবেন এমটাই প্রত্যাশা ক্রিকেট ভক্তদের।