সংবাদ শিরোনাম

৬ বছরের ছেলে সাহেলের প্রথম রোজা, আপ্লুত মাশরাফিকোরআন তেলাওয়াত, ইবাদতে প্রথম রোজা কেটেছে খালেদারভাঙ্গায় রাতের আঁধারে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর-লুটপাট : আহত-১৫বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধেমহাসড়ক যানশূন্য, শিমুলিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ‘তালা ভেঙ্গে মসজিদে তারাবি পড়ার চেষ্টা্’‌, পুলিশের বাধায় সংঘর্ষে মুসল্লিরা‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আজ ফরিদপুরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর সাথে ইউপি সচিবদের মহাসমাবেশ !

১২:৪২ অপরাহ্ন | শনিবার, অক্টোবর ২৯, ২০১৬ Breaking News, আলোচিত বাংলাদেশ, দেশের খবর, ফিচার, মফস্বল সংবাদ, স্পট লাইট

নিউজ ডেস্ক,সময়ের কণ্ঠস্বরঃ  দীর্ঘ প্রায় দুই দশক পর  আজ ফরিদপুরে স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর সাথে ইউপি সচিবদের মহাসমাবেশ।কিছুদিন পুর্বে  জাতীয় প্রতীকে ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন সম্পন্ন হোলো । এমতবস্থায় স্থানীয় রাজনিতীর পরিমন্ডলে  ইউপি সচিবদের এই মহাসমাবেশ অত্যন্ত গুরুত্তপুর্ণ।কারন তৃর্নমূল পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার সপ্ন বাস্তবায়নের ইউপি সচিবরা নিজেদের  ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার প্রধান কারিগড় মনে করে।

ups-moha-somabeshe-faridpur
বর্তমান সরকার ইউনিয়ন পরিষদ আইন,২০০৯ প্রনয়নের ফলে প্রথমবারের মত পল্লী অঞ্চলে আইনগত ভিত্তির মাধ্যমে ইউনিয়ন পরিষদকে স্থানীয় সরকারের প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়।
অথচ ইউনিয়ন পরিষদ আইন হওয়ার পরও প্রশাসনিক কর্মকর্তা বিহীন চলছে ইউনিয়ন পরিষদ কাজকর্ম। ইউনিয়ন পরিষদের একমাত্র কর্মচারী ইউনিয়ন পরিষদ সচিব এবং এই পদটিই ইউনিয়ন পরিষদ প্রশাসনের কেন্দ্রবিন্দু। কিন্তু ইউপি সচিবদের কর্মকর্তা পদবী ও নির্বাহী ক্ষমতা না থাকায় অবহেলিত ইউনিয়নবাসী যেমন একদিকে তাৎক্ষনিক বিভিন্ন সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে অন্যদিকে সরকারের লক্ষ্য লক্ষ্য টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের অর্থও লুটপাট হচ্ছে।
দির্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে চলা এই ইউপি সচিবদের চাকুরী জাতীয়করন ও দ্বিতীয় শ্রেণীর অফিসার পদমর্যাদা প্রদান সহ নির্বাহী ক্ষমতা প্রদানের ন্যায্য দাবী আদায়ের আন্দলোন।

bangladesh-union-parishad-secretary-association

স্থানীয় সরকার এর টায়ার হিসেবে খ্যাত  ইউনিয়ন পরিষদকে  শক্তিশালী ও কার্যকর করতে ইউপি সচিবদের দাবীর সঙ্গে সরকারের কি একমত হওয়া উচিতঃ
এ বিষয়ে আমাদের সময়ের কণ্ঠস্বর প্রতিনিথির সাথে কথা হয় ঠাকুরগাঁও জেলার ইউনিয়ন পরিষদ সেক্রেটারী এসোসিয়েশন এর সম্নয়ক এবিএম ফরিদ আহমেদ (ইউপি সচিব) মহোদয়ের সঙ্গে,
তিনি আমাদের জানান যে, দীর্ঘ প্রায় দুই দশক ধরে চলা এই ইউপি সচিবদের চাকুরী জাতীয়করন ও দ্বিতীয় শ্রেণীর অফিসার পদমর্যাদা প্রদান সহ নির্বাহী ক্ষমতা প্রদানের ন্যায্য দাবী আদায় সফলতার মুখ না দেখার কারন কিছু অতি তাবেদার আমলাতান্ত্রীক জটিলতা পাশাপাশি আমাদের কেন্দ্রীয় কমিটির গ্রুপিং নিস্ক্রিয়তা এবং দুর্বল সাহসিকতার অযোগ্য নেতৃত্ব।
যেরকম এর আগে আমলা –মন্ত্রী্রা আমাদের নেতাদের বুঝাতে সক্ষম হয়েছিল যে,ইউনিয়ন পরিষদ সচিব দ্বিতীয় শ্রেণীর অফিসার হবে কিন্তু জাতীয়করন করা যাবেনা। অথচ জাতীয়করন ছাড়া যে, ও দ্বিতীয় শ্রেণীর অফিসার পদমর্যাদা প্রদান সম্ভব না সেটা কি তারা জানেননা!
আবারও যেরকম ফরিদপুরের সম্মেলনে বলা হয়ছে ইউপি সচিবদের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য আজকের এই মহাসমাবেশ।
আমি এতে একমত নয় বরং আমি মনে করি ইউনিয়ন পরিষদকে স্বাবলম্বী করতে হলে এবং রাজস্ব আয় বৃদ্ধি করতে হলে সচিবদের আয়ন-ব্যয়ন কর্মকর্তা করা ছাড়া অন্য কোন উপায় নেই। সারাদেশের ৪৫৭৩টি ইউনিয়ন পরিষদ হতে বছরে শুধুমাত্র হোল্ডিং কর হতে ৪৫০০ মিলিয়ন টাকা রাজস্ব আদায় সম্ভব।
পরিশেষে ঠাকুরগাঁও জেলার ইউনিয়ন পরিষদ সেক্রেটারী এসোসিয়েশন এর সম্নয়ক এবিএম ফরিদ আহমেদ (ইউপি সচিব) বলেন যে, শুধুমাত্র ইউপি সচিবদের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য নয় ইউনিয়ন পরিষদকে স্বাবলম্বী করতে হলে তথা স্থানীয় সরকার শক্তিশালী ও অবহেলিত,সুবিধাবঞ্চিত ইউনিয়নবাসীর ভাগ্য উন্নয়নের লক্ষে সচিবদের দশম গ্রেড এবং নির্বাহী ক্ষমতা প্রদান ব্যাতিত কোন বিকল্প নেই।

mohasomabesh-faridpur

ইউপি সচিবদের দাবি হওয়া উচিতঃ”দফা এক ও দাবী এক জাতীয়করন ও দশম গ্রেড।”