• আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চরফ্যাশনে ভুয়া সনদে বাল্য বিয়ের হিড়িক

১২:৪৩ অপরাহ্ন | শনিবার, অক্টোবর ২৯, ২০১৬ দেশের খবর, বরিশাল

এস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার ২১টি ইউনিয়নে ভুয়া ও জাল জন্ম নিবন্ধন সনদ দিয়ে অক্টোবর মাসে প্রায় অর্ধশতাধিক বাল্য বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে বলে উপজেলা প্রশাসন, থানা, কোষ্ট্র ট্রাষ্ট্র আইনি সহায়তা কেন্দ্র, স্কুল, মাদ্রসা ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধানরা নিশ্চিত করেছেন।

balo-bia

জানা যায়, বৃহস্পতিবার দিন উপজেলার চর আইচা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ফাতেমার (রোল নং ৩১) বিয়ে হওয়ার খবর পেয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তাকে অবহিত করলে দক্ষিণ আইচা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হানিফ সিকদার ফাতেমার ফুফাতো ভাই ইব্রাহিম কাজী, চাচা মিজান, ইউসুফ ও ভাবী রাজিয়া বেগমকে গ্রেপ্তার করে ভ্রাম্যমান আদালতে সোপর্দ করলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ মনোয়ার হোসেন রাতের সময় ইব্রাহিম কাজী ও মিজানকে ১৫ দিনের জন্য জেল হাজতে প্রেরণের নিদের্শ দেন। এছাড়া ইউসুফ ও রাজিয়াকে ১ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড করে মুক্তি দেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার নজরুল নগর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মালেক ডুবাই’র মেয়ের ভুয়া জন্ম নিবন্ধন কার্ডের মাধ্যমে বিবাহ রেজিষ্ট্রি করেছে। সে আন্জুরহাট মাঝের চর ফাযিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী। চর আইচা হোসাইনিয়া দাখিল মাদ্রাসার নবম শ্রেণির ছাত্রী (রোল নং ৩৫) নাহারের সাম্প্রতিক ভুয়া জন্ম নিবন্ধন কার্ড দেখিয়ে বিয়ে সম্পন্ন করে। এছাড়াও শশীভূষণ থানার চৌমুহনী বাজার জোর মসজিদ সংলগ্ন সেলিম মেস্তেরীর মেয়ে আনজুর হাট হাইস্কুলের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী নাছিমা বেগম ২৬ অক্টোবর বধু সেজে শ্বশুর বাড়ির সংসারের হাল ধরেছে।

চরফ্যাশন উপজেলার ৩ থানার অফিসার ইনচার্জরা জানান, এ সকল বিয়েগুলো কাবিন করার আগে স্কুলের সকল প্রকার কাগজ পত্র গোপন করে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে নতুন করে জন্ম নিবন্ধন দেখিয়ে কাবিন করেন। অপরদিকে অনেকে কাবিন না করে বিয়ের কাজ সম্পন্ন করে।

চরমানিকা ইউনিয়নের কাজীর রাইটার ফারুকের সাথে ফোনে আলাপ করলে তিনি সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, আমি জন্ম নিবন্ধন কার্ড অনুযায়ী কাবিন রেজিষ্ট্রি করেছি। এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত কাজী মোঃ ফারুক পলাতক রয়েছে বলে দক্ষিণ আইচা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হানিফ সিদকার জাানিয়েছেন।