• আজ বৃহস্পতিবার। গ্রীষ্মকাল, ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২২শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। রাত ১১:৩৭মিঃ

শরীয়তপুরে প্রতিপক্ষের সমর্থকদের ভয়ভীতি এবং কেন্দ্র দখলের অভিযোগ

⏱ | শনিবার, অক্টোবর ২৯, ২০১৬ 📁 ঢাকা, দেশের খবর

নয়ন দাস, শরীয়তপুর প্রতিনিধি: শরীয়তপুরে শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা, প্রতিপক্ষের সমর্থকদের ভয়ভীতি এবং নির্বাচনের দিন কেন্দ্র দখলের হুমকির অভিযোগ উঠেছে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিরুদ্ধে।

s-pur

মামলা সংক্রান্ত জটিলতায় কারণে স্থগিত থাকা ভেদরগঞ্জের ছয়গাঁ, নড়িয়ার নশাসন, গোসাইরহাটের কুচাইপট্টি এবং আলাওলপুর ও সদরের মাহামুদপুর এই ৫টি ইউনিয়নের ৩১ অক্টোবর রবিবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। শেষ মূহুর্তে প্রচার প্রচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে নির্বাচনী এলাকা। প্রার্থীরা অবিরাম ছুটে বেড়াচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে ভোটারদের মাঝে।

তবে কুচাইপট্টি ইউনিয়ন পরিষদের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ নাছির উদ্দিন, আলাওলপুর ইউনিয়ন পরিষদের বি.এন.পি প্রার্থী কস্তরুবা ইসলাম সাথী, আলাওলপুর ইউনিয়ন পরিষদের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ উসমান গনি বেপারী, কুচাইপট্রি ইউনিয়ন পরিষদের স্বতন্ত্র প্রার্থী নাছির উদ্দিন স্বপন এবং নশাসন ইউনিয়ন পরিষদের আওয়ামীলীগ প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন তালুকদারের অভিযোগ প্রচার প্রাচারণায় বাঁধা দেয়া এবং ভোট কেন্দ্র দখলের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এসব অভিযোগ মানতে রাজি না প্রার্থীরা।

এদিকে, পদ্মা মেঘনা নদী দ্বারা বেষ্টিত শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার কুচাইপট্টি এবং আলাওলপুর ইউনিয়ন। সীমানা নির্ধারণ নিয়ে আদালতে মামলা থাকায় ইউনিয়ন দুটিতে দীর্ঘ ১৪ বছর যাবৎ নির্বাচন স্থগিত থাকার পর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নির্বাচন। দীর্ঘ দিন পরে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোট দেয়ার সুযোগ পাওয়ায় ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে ভোটারদের মাঝে। প্রার্থী ও সমর্থকদের প্রচার প্রচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে নির্বাচনী এলাকা। শেষ মূহুর্তে প্রার্থীরা রাতের ঘুম হারাম করে ছুটে বেড়াচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। কিন্তু সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকেই নির্বাচিত করবে ভোটাররা।

তবে নির্বাচনী আচরণ বিধি মানা হচ্ছে না ইউনিয়ন গুলোতে। দেয়ালে দেয়ালে সেটে দেয়া হয়েছে প্রার্থীদের পোস্টার। অন্যদিকে প্রতিপক্ষের সমর্থকদের ভয় ভীতি দেখানো এবং নির্বাচনের দিন ভোট কেন্দ্র দখল করে নেয়ার হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামীলীগের প্রার্থীদের বিরুদ্ধে। ইউনিয়ন ৫টিতে আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও স্বতন্ত্রসহ চেয়ারম্যান পদে ২১ জন, সাধারণ সদস্য পদে ১১৬, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৩৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এ ব্যাপারে জেলা নির্বাচন অফির্সার শেখ জালাল উদ্দিন সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, শান্তিপূর্ণ ভাবেই ৫টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার ও একাধিক নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোবাইল টিমে সহযোগীতা করবেন।