• আজ মঙ্গলবার। গ্রীষ্মকাল, ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২০শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। সকাল ৮:০৭মিঃ

নাটোরের সিংড়ায় অজ্ঞাত যুবতীর মৃতদেহের পরিচয় মিলেছে

৫:২৭ অপরাহ্ন | সোমবার, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৬ রাজশাহী

তাপস কুমার, নাটোর প্রতিনিধি : নাটোরের সিংড়ায় অজ্ঞাত যুবতীর মৃতদেহের পরিচয় নিশ্চিত করেছে পুলিশ। নিহত যুবতীর নাম রেজেনা পারভীন রুপালী। সে লালমনিরহাট জেলার মোস্তফি গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে। এদিকে সোমবার নিহত ওই যুবতীর প্রেমিক স্বামী শাহমিম হোসেনকে ফুলবাড়ী এলাকা থেকে আটক করেছে সিংড়া থানা পুলিশ।

সিংড়া থানার উপ-পরিদর্শক দেবব্রত দাস জানান, নিহত যুবতী রেজেনা পারভীন রুপালী বগুড়া মেরিস্টোপ ক্লিনিকে নার্সের চাকুরীরত ছিলেন। চাকুরী করার সুবাদে ফুলবাড়ী এলাকার যুবক শাহমিমের সাথে পরিচয় ও আলাপ-চারিতা শুরু হয়। সেই পরিচয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে তাদের বিয়েও হয়। বিয়ের কিছুদিন পর বিবাহ বিচ্ছেদ করে তার স্বামী। এরপর আবার তাদের নিজেদের মধ্যে দ্বিতীয় বার বিয়ে করার ঘটনা ঘটে।

nator

দ্বিতীয় বিয়ের পর থেকেই চলে তাদের সংসারে মনো-মালিন্য ও বিরোধ। এক পর্যায়ে গত বৃহস্পতিবার বগুড়া থেকে ওই যুবতী নিখোঁজ হয়। কয়েকদিন ধরে তার কোন সন্ধ্যান পায় না পরিবারের সদস্যরা। এতে তারা বিভিন্ন স্বজনদের কাছে তার খোঁজ করেন এবং সকল স্বজনের কাছেই নিরাশ হন। এদিকে গত রোববার নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের বাঁশের ব্রীজ এলাকা থেকে অজ্ঞাত যুবতীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এঘটনাটি মিডিয়ার মাধ্যমে নিখোঁজ রুপালীর পরিবারের লোকজন জানতে পেরে সিংড়া থানায় যোগাযোগ করেন। এসময় তাদের কাছ থেকে সকল তথ্য নেওয়ার পর পুলিশ ফুলবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে শাহমিম হোসেনকে আটক করে।

সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাসির উদ্দিন মন্ডল জানান, হত্যাকান্ডের দায়ে নিহত যুবতীর প্রেমিক স্বামীকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

 নাটোরে মেহগণি গাছে বিরল এক বন্য প্রাণী দেখা মিলেছে

নাটোরে বিরল এক বন্য প্রাণী দেখা গেছে। সোমবার সকাল থেকে সদর উপজেলার ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের একটি মেহগণি গাছের ডালে বসে থাকতে দেখা গেছে প্রাণীটিকে। মেহগণি গাছে প্রাণীটি আশ্রয় নেওয়ার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে আশেপাশের গ্রামের মানুষজন তা দেখতে ভীড় জমায় ওই মেহগণি বাগানে। ভীড় সামলাতে বাগানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। খবর পেয়ে রাজশাহী থেকে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ অধিদপ্তরের একটি দল প্রাণীটি উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলের উদ্ধেশ্যে রওনা হয়েছেন বলে জানিয়েছেন নাটোর বন বিভাগের কর্মকর্তা।

bonno-praniনাটোর বন বিভাগের কর্মকর্তা এবিএম আব্দুল্লাহ ও এলাকাবাসী জানান, সোমবার সকালে ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নানের বাড়ির পাশে মেহগণি বাগানের একটি গাছে বিরল প্রাণীটি দেখতে পায় এলাকাবাসি। ঘটনাটি জানাজানি হলে ঐ গ্রামসহ আশপাশের গ্রামের লোকজন প্রাণীটি দেখতে গাছের নীচে ভীড় জমায়। উৎসুক জনতা প্রাণীটিকে পান্ডা ,মেছো বাঘ, বনবিড়াল, কোলঘুট নানা নামে বিশেষায়িত করছেন। প্রাথমিকভাবে প্রাণীটিকে বড় জাতের মেছো বিড়াল বলেও ধারণা করা হচ্ছে। মানুষজনকে সরিয়ে প্রাণীটিকে নিরাপদে সরে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান বন কর্মকর্তা।

‘কৃষকদের পরিশ্রমের ফলেই এ দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রয়েছে’

বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস.কে. সুর চৌধুরী বলেছেন, কৃষকদের পরিশ্রমের ফলেই এ দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রয়েছে। তাই সেই কৃষকদের উন্নয়নের জন্য পুনঃ অর্থায়ন স্কিমের আওতায় ১০ টাকার হিসাবধারীদের মশল্লা চাষ, গাভী পালন, মৎস্য চাষ, ক্ষুদ্র ব্যবসাসহ বিভিন্নখাতে প্রকাশ্যে ঋণ প্রদান কার্যক্রম শুরু করা হলো।

এ ঋণের টাকা উৎপাদন খাতে বিনিয়োগ করে অস্বচ্ছল কৃষকরা নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তন করবে এবং সময়মত সুদসহ ঋণের টাকা পরিশোধ করে পুনরায় ঋণ গ্রহণ করবে। তবে এ কাজে কেউ যাতে হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে দৃষ্টি রাখতে ব্যাংক কর্মকর্তাদের প্রতি আহবান জানান তিনি।

জনাব এস. কে. সুর চৌধুরী রবিবার নাটোরের লালপুর উপজেলার ওয়ালিয়া স্কুল মাঠে ১০ টাকার হিসাবধারীদের অনুকূলে প্রকাশ্যে ঋণ বিতরণ ও গ্রাহক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাকাব) নাটোর জোন আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাকাব রাজশাহী শাখার ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ আবু আসাদের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, রাকাব রাজশাহী বিভাগের মহা ব্যবস্থাপক রফিকুল আলম চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নাটোর জেলা কমান্ড আব্দুর রউফ, ওয়ালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমানসহ অন্যান্যরা। পরে ১০ টাকার হিসাবধারী ৫ জনকে প্রকাশ্য ঋণ প্রদান করা হয়। উলে¬খ্য এ স্কিমের আওতায় নাটোর জোনের আওতায পর্যায়ক্রমে মোট ৫০ জনের মাঝে ২৪ লাখ ৬ হাজার টাকার ঋণ প্রদান করা হবে।