সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আড়াইহাজারে ১২শ গ্রাহকের বিরুদ্ধে পল্লী বিদ্যুতের মামলা

১১:৪১ পূর্বাহ্ন | বুধবার, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৬ ঢাকা, দেশের খবর

এম এ হাকিম ভূঁইয়া, আড়াইহাজার প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার দুটি জোনাল অফিসের অধিনে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল সময় মত পরিশোধ না করায় প্রায় ১২শ গ্রাহকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

mamla

চলতি বছরের জানুয়ারী থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে মামলাগুলো দায়ের করা হয়েছে। ২৫২ জনের বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে। এরই মধ্যে অনেকে গ্রেফতার হয়েছেন। বকেয়া গ্রাহকদের মধ্যে অধিকাংশই শিল্প মালিক। গ্রেফতার এড়াতে অনেকে ইতি মধ্যে বিল পরিশোধ করেছেন।

স্থানীয় রপ্তানীমুখী উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের এক মালিক নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জানান, তার কাছে বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। নানা কারণে তার প্রতিষ্ঠানটি লোকসান মুখে পড়ায় সঠিক সময় বিল পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয়েছেন। তিনি আরও বলেন, বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের কাছে বকেয়া বিল কিস্তিতে পরিশোধের অনুরোধ করে কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। তার মতে স্থানীয় অনেক শিল্প মালিকদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

জানা গেছে, গোপালদী পল্লীবিদ্যুৎ অফিসের অধিনে বকেয়া বিল সময় মত পরিশোধ করতে না পারায় ৫৪৬ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে শিল্প মালিকদের বিরুদ্ধে ২২৮টি মামলা, আবাসিক ১৯৯টি এবং অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহার করা অপরাধে ১১৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে নিষ্পত্তি করা হয়েছে শিল্প ১৪১টি, আবাসিক ৯৯টি ও অবৈধ ব্যবহারকারী ২৪টি। বর্তমানে ২৫২ জন গ্রাহকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি রয়েছে। আড়াইহাজার পল্লীবিদ্যুৎ জোনাল অফিসে ৬০৪টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে শিল্প মালিক ২৮২টি, আবাসিক ২৯৭টি ও অবৈধ ব্যবহার করার অপরাধে ২৫টি মামলা হয়েছে। ইতি মধ্যে ৩২১টি মামলা বিল আদায়ের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়েছে।

মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে আড়াইহাজার পল্লীবিদ্যুতের (ডিজিএম) আসাদুজ্জামান সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, গ্রাহকদের হয়রানি করা আমাদের উদ্দেশ্য নয়। বকেয়া বিল পরিশোধের জন্য দফায় দফায় অবহিত করার পরও পরিশোধ না করায় আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ পল্লীবিদ্যুৎ সমিতির সদস্য সচিব ড: মোঃ গোলাম কিবরিয়া সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, জনসাধারণকে নির্বিছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করা সরকারের উদ্দেশ্য। কাউকে হয়রানি করা আমাদের কাম্য নয়। কিছু গ্রাহকের বিল বকেয়ার কারণে সেবা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। আমরা বকেয়া গ্রাহকদের তিন থেকে চার বার নোটিশ করার পর বিল পরিশোধ না করায় আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘গ্রাহকরা বকেয়া বিল নিজ নিজ জোনাল অফিসে পরিশোধ করে দিলে তাদেরকে দায়মুক্ত সার্টিফিকেট দেয়া হচ্ছে। তারা আদালতে হাজির হলে খালাস পেয়ে যাবেন।’