সংবাদ শিরোনাম

খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট নিয়ে যা বললেন চিকিৎসক২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেন কাদের মির্জাটাঙ্গাইলে ভন্ড পুরুষ কবিরাজ নারী সেজে যুবককে বিয়ে! অতঃপর…ব্যক্তিগত কাজে সরকারি গাড়ি নিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার ঢাকা ভ্রমণ!শেরপুরের সেই শিশু রোকনের পরিবারের পাশে ইউএনও!কক্সবাজারে অস্ত্রসহ ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতারকক্সবাজারে অনুপ্রবেশকারীর পক্ষ না নেয়ায়, আ’লীগ সভাপতিকে অব্যাহতি!শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি সিএনজি’র মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১রমজান মাসে আলেমদের হয়রানি মেনে নেয়া যায় না: নুরুল ইসলাম জিহাদীখালেদা জিয়াকে পাকিস্তান-জাপান দূতের চিঠি

  • আজ ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘থার্টি ফাস্ট নাইটে ঢাকায় হামলার পরিকল্পনা ছিল’

৪:২৫ অপরাহ্ন | বুধবার, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৬ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর- ‘মিরপুর থেকে গ্রেপ্তার হওয়া জেএমবির সদস্যরা থার্টি ফার্স্ট নাইটে ঢাকায় হামলার পরিকল্পনা করেছিল। তারা সংগঠনটির সক্রিয় সদস্য।’ বুধবার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে প্রায় ৩০ কেজি বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে। পরে তাদের প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে তারা থার্টি ফার্স্ট নাইটে নাশকতা চালানোর পরিকল্পনার কথা স্বীকার করেছে। পাঁচজনের মধ্যে রিয়াজ জেএমবির নেতা। অনেকদিন ধরে সে সংগঠনটির সঙ্গে জড়িত।’

monir-1425381004গত ১৭ অক্টোবর রাতে তেজগাঁও এলাকার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন জেএমবির সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ তখন জানিয়েছিল, জঙ্গি সংগঠনের জন্য অস্ত্র কেনা এবং কারাবন্দী নেতাদের মুক্ত করতে প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহের জন্য তাঁরা ডাকাতি করতেন।

গতকাল সন্ধ্যায় গ্রেপ্তার হওয়া পুরোনো জেএমবির সক্রিয় পাঁচ সদস্যদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা জানান যে তাঁরা রাজশাহী এলাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত জিয়া, হায়দার, শহীদুল্লাহর নির্দেশ ও পরামর্শ মোতাবেক থার্টি ফাস্ট নাইটে ঢাকায় নাশকতার লক্ষ্য নিয়ে বিস্ফোরক দ্রব্য সংগ্রহ করেছিলেন। তাঁদের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের তরল ও পাউডার-জাতীয় ৩০ কেজি বিস্ফোরক পদার্থ, বোমা তৈরির সরঞ্জাম ও বই উদ্ধার করা হয়েছে।

আশকোনার জঙ্গি আস্তানা ১৯টি তাজা গ্রেনেড সম্পর্কে জানতে চাইলে মনিরুল ইসলাম বলেন, এসব গ্রেনেড ছিল হাতে তৈরি। এর মধ্যে কিছু ছিল বেশ শক্তিশালী। আর সুইসাইডাল ভেস্টের থাকা গ্রেনেডগুলো ছিল শক্তিশালী। সুইসাইডাল ভেস্ট ছিল জঙ্গিদের নতুন প্রযুক্তি।

শক্তিশালী গ্রেনেড হলে আত্মঘাতী ওই নারীটির ছিন্নভিন্ন হয়ে যাওয়ার কথা—সাংবাদিকেরা জানতে চাইলে মনিরুল বলেন, আত্মঘাতী নারীটি যে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে, তার মধ্যে কিছু ফুটেছে, কিছু ফোটেনি।