• আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

আরেকটি চাঞ্চল্যকর মামলায় গ্রেপ্তার হলেন কলকাতার চিত্রতারকা ও সংসদ সদস্য তাপস!

৫:২৫ অপরাহ্ন | শুক্রবার, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৬ Breaking News, আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক – তৃণমূল সংসদ সদস্য তাপস পালকে গ্রেপ্তার করল ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই। রোজভ্যালির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগের অভিযোগে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হল।

সিজিও কমপ্লেক্সে আজ শুক্রবার সকাল থেকে চার ঘণ্টা জেরার পর তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সিবিআই সূত্রের খবর, বেআইনি অর্থলগ্নি সংস্থা রোজভ্যালির সঙ্গে তাপস পালের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল এবং তিনি ওই সংস্থার কাছ থেকে বিভিন্ন সময়ে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়েছেন বলে সিবিআই অভিযোগ পেয়েছিল। বিষয়টি নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাপসকে একাধিক বার সমন পাঠিয়েছিল সিবিআই। আজ শুক্রবার সকালে তাপস পাল স্ত্রীসহ সিবিআই দফতরে হাজির হন। সঙ্গে তাঁর কৌঁসুলিও ছিলেন। এর কিছুক্ষণ পরই প্রথম দফার জেরা শুরু হয়।

tapos-rose-vali

সারদা-কাণ্ডের মতো আরেকটি চাঞ্চল্যকর আর্থিক কেলেঙ্কারি মামলা রোজভ্যালি আর্থিক দুর্নীতি কাণ্ড। এই রোজভ্যালি স্বল্প সঞ্চয়ের একটি আর্থিক সংস্থা বা চিটফান্ড সংস্থা। এ সংস্থায় বহু মানুষ অর্থ রেখে প্রতারিত হয়েছেন। সেই আর্থিক দুর্নীতির মামলা এখনো চলছে। এ মামলা তদন্তের দায়িত্বভার সিবিআইয়ের হাতে রয়েছে। রোজভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডু আগে গ্রেপ্তার হয়েছেন।

রোজভ্যালি দুর্নীতির খবর ফাঁস হওয়ার পরই এর সঙ্গে কলকাতার চিত্রতারকা তাপস পালের নাম ওঠে আসে। তাপস পাল রোজভ্যালি সংস্থার চলচ্চিত্র প্রকল্পের পরিচালক ছিলেন। এই সংস্থা থেকে তাপস পাল আর্থিক সুবিধা নিয়েছেন বলে অভিযোগ আছে। এ অভিযোগ ওঠার পর সিবিআই জেরা করলেও তাপস পাল রোজভ্যালি থেকে আর্থিক সুবিধা গ্রহণের কথা অস্বীকার করেন। যদিও গত বছর মার্চ মাসে তাপস পালের দক্ষিণ কলকাতার বাসভবনে তল্লাশি করে বেশ কিছু নথি বাজেয়াপ্ত করে সিবিআই।

সিবিআই বলেছে, তাপস পালের রোজভ্যালি থেকে আর্থিক সুবিধা গ্রহণের বহু তথ্য তাদের হাতে রয়েছে। এই আর্থিক সুবিধা নিয়েছেন নগদ এবং ব্যাংকের মাধ্যমে।

গত মঙ্গলবার তৃণমূল সাংসদ তাপস পালকে কলকাতার সল্টলেকের সিবিআই কার্যালয়ে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। আজ তিনি স্ত্রীকে নিয়ে সিবিআই দপ্তরে হাজির হন। তাঁর সঙ্গে কৌঁসুলিও ছিলেন। সিবিআইয়ের কর্মকর্তারা তাঁকে দুই দফায় চার ঘণ্টা জেরা করেন। তাঁর বয়ানও রেকর্ড করা হয়। কিন্তু তাপস পাল সিবিআইর অধিকাংশ প্রশ্ন এড়িয়ে যান। অনেক প্রশ্নের জবাব দেননি। এরপরেই সিবিআই তাপস পালকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের খবর জানিয়ে দেওয়া হয় সংবাদমাধ্যমকে।

তৃণমূলের সাংসদ তাপস পাল ২০১৪ সালে দেশটির লোকসভা নির্বাচনের সময় নদিয়ার নাকাশিপাড়ায় তৃণমূলের এক নির্বাচনী সভায় তাঁর দলের লোক দিয়ে সিপিএমের নারী কর্মীদের ধর্ষণের হুমকি দিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন।