সংবাদ শিরোনাম

খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট নিয়ে যা বললেন চিকিৎসক২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেন কাদের মির্জাটাঙ্গাইলে ভন্ড পুরুষ কবিরাজ নারী সেজে যুবককে বিয়ে! অতঃপর…ব্যক্তিগত কাজে সরকারি গাড়ি নিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার ঢাকা ভ্রমণ!শেরপুরের সেই শিশু রোকনের পরিবারের পাশে ইউএনও!কক্সবাজারে অস্ত্রসহ ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতারকক্সবাজারে অনুপ্রবেশকারীর পক্ষ না নেয়ায়, আ’লীগ সভাপতিকে অব্যাহতি!শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি সিএনজি’র মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১রমজান মাসে আলেমদের হয়রানি মেনে নেয়া যায় না: নুরুল ইসলাম জিহাদীখালেদা জিয়াকে পাকিস্তান-জাপান দূতের চিঠি

  • আজ ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

নিহত জঙ্গি শাকিবাকে চরফ্যাশনে আনা হচ্ছে আজ

১২:০০ অপরাহ্ন | শনিবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৬ দেশের খবর, বরিশাল

এস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি: রাজধানীর আশকোনার সূর্য ভিলার জঙ্গি আস্তানায় আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে নিহত শাকিরার লাশ চরফ্যাশনে এওয়াজপুর পারিবারিক কবরস্থানে দাফনের জন্যে পাঠানো হচ্ছে বলে চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে।

jongi

চরফ্যাসন উপজেলা সদর থেকে প্রায় ৯ কিলোমিটার দুরে এক অজয় পাড়া গায়ে শাকিরার জন্ম। শকিরার বাবা চরফ্যাশনের এওয়াজপুর ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ আলম চৌকিদার (৫৬)। মায়ের নাম ফাতেমা বেগম (৬৫)। শাকিরারা চার বোন এক ভাই। বোনদের মধ্যে তিনি তৃতীয়। ভাইটি মানসিক প্রতিবন্ধী। চার বছর আগে উচ্চমাধ্যমিকে পড়ার সময় পার্শ্ববর্তী লালমোহন উপজেলার জনৈক ইকবালের সঙ্গে বিয়ে হয় শাকিরার। ইকবাল ঢাকার মোহাম্মদপুরের বছিলায় ছোটখাটো ব্যবসা করতেন। তাদের সংসারে রয়েছে সাবিনা নামে এক মেয়ে।

রাজধানীর আশকোনার সূর্য ভিলার জঙ্গি আস্তানায় আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণে মেয়ে শাকিরার নিহত হওয়ার খবরে বিচলিত হয়ে ওঠেন বাবা শাহ আলম। হেনস্তা হওয়ার ভয়ে আত্মগোপন করেন এই আওয়ামীলীগ নেতা। পরে স্থানীয় পুলিশ যোগাযোগ করে তাকে নিয়ে বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ঢাকায় নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) শাকিরার বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদ ও লাশ শনাক্ত করতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর তাকে গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ।

ma

চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার জানান, শাকিরার প্রথম স্বামী ইকবাল ক্যানসারে ভুগে সাড়ে ৩ বছর আগে মারা যায়। স্বামীর মৃত্যুর পর শাকিরা মেয়েকে নিয়ে ভোলায় ফিরে যাননি। মোহাম্মদপুরের একটি ক্লিনিকে কাজ করতেন। সেখানেই পরিচয় হয় রাশেদুর রহমান ওরফে সুমনের সঙ্গে।

কীভাবে জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত: শাকিরার বাবা-মায়ের দাম্পত্য জীবন ভেঙে যাওয়া, অসচ্ছলতা আর জমিজমা নিয়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে বিরোধে পুরো পরিবারে চলছে বিশৃঙ্খল অবস্থা। এর অবস্থাতেই কি শাকিরা জড়িয়ে পড়ে জঙ্গিবাদে? এ প্রশ্নের জবাবে খুঁজতে শাকিবার বাবা শাহ আলম চৌকিদারের বাড়িতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি।

তবে পারিবারিক সূত্র জানায়, শনিবার শাকিবার লাশ পরিবারকে হস্তান্তর করলে রবিবার দিন এওয়াজপুর গ্রামে পারিবারিক ভাবে দাফন করা হবে।