সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

এ বছর কী নিয়ে আসছে বলিউড? যা দেখার অপেক্ষায় সিনেমা প্রেমীরা…

১:৫৮ অপরাহ্ন | রবিবার, জানুয়ারী ১, ২০১৭ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক- ভালো-মন্দের মিছিলে প্রতিবারের মত সদ্য গত হলো পাওয়া, না পাওয়ার ২০১৬ সাল! গত বছরে যারা চাওয়ার চেয়ে বেশী পেয়েছেন, তারাতো বটেই বরং যারা চাওয়ার তুলনায় পেয়েছেন অল্প তারা আরো কোমর কেছে নেমে পড়বেন নতুন বছরে নতুন উদ্যোমে।

hhhপৃথিবীর সব পেশাজীবী মানুষের ক্ষেত্রেই এটা প্রযোজ্য। বিনোদন জগতও তার ব্যতিক্রম নয়। গত বছরের প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তির জায়গাগুলো নিয়ে হিসেবে কষে নিশ্চয় নতুন বছরে তারাও কাজে নেমে পড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। বলিউডের জন্য গত বছরটি ছিল জৌলুসময়। বেশকিছু ছবি ‘সুপার হিট’ হয়েছে। গুণগত মান ঠিক রেখে প্রচুর ভালো ছবিও গত বছরে উপহার দিয়েছে বলিউড। চলতি বছরেও নাকি ব্যতিক্রম হবে না তার।

পদ্মাবতী
টিম ‘বাজিরাও মস্তানি’ এবার ইতিহাসের পাতা থেকে তুলে আনছে রানি পদ্মাবতী-আলাউদ্দিন খলজিকে। ‘গ্র্যাঞ্জার’ পূর্ণ ছবি তো সঞ্জয় লীলা বনশালীর পরিচিত জ্যঁর। আর সেখানে চালিয়ে খেলতেও পটু তিনি! ‘পদ্মাবতী’তে তাঁর প্রিয় দীপিকা-রণবীর তো থাকছেনই। উপরি পাওনা রাজা রতন সিংহের চরিত্রে শাহিদ কপূর! সেট’এ শাহিদ-রণবীরের ঝগড়া, নায়কদের চেয়ে দীপিকার বেশি পারিশ্রমিক, ছবিকে ঘিরে নানা রকম গসিপ ইতিমধ্যেই বাজার গরম করে রেখেছে।

রইস
ট্রেলারে তো খানদাদা বলেই দিয়েছেন যে, তিনি আসছেন! বছরের শুরুতেই একটা ধুন্ধুমার গ্যাংস্টার ফিল্ম দেখার জন্য অপেক্ষা করে আছেন দর্শক। উপরি পাওনা মজুমদার আর রইসের টক্কর। নওয়াজুদ্দিন ভার্সেস শাহরুখ মিস্‌ করা যাবে না কিছুতেই।

রেঙ্গুন
জমজমাট স্টারকাস্ট। সেফ আলি খান, কঙ্গনা রানাউত, শাহিদ কপূরকে যখন নির্দেশনা দিচ্ছেন বিশাল ভরদ্বাজ, তখন ফলাফল কী হতে চলেছে আন্দাজ করাই যায়! পিরিয়ড ড্রামা বানাতে সিদ্ধহস্ত বিশাল। আর ‘রেঙ্গুন’এর প্রেক্ষাপট দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। কাজেই দেখার সুযোগ হাতছাড়া করলে পস্তাতে হতে পারে!

টিউবলাইট
কবীর খান-সলমন খান জুটি। অতএব আরেকটা ‘বজরঙ্গি ভাইজান’এর জন্য অপেক্ষা করতেই পারেন দর্শক। অন্য রকম সলমনকে দেখতে ভালবাসেন যাঁরা, তাঁরা এ বছর ‘টিউবলাইট’এর জন্য অপেক্ষা করে আছেন নিঃসন্দেহে। চিনা অভিনেত্রী ঝু ঝু আর সলমনের যুগলবন্দিটা ইন্টারেস্টিং! ছবির গল্প এখনও স্পষ্ট না হলেও শোনা যাচ্ছে, ১৯৬৫’র ইন্দো-চিন যুদ্ধের উপর ছবি তৈরি করছেন কবীর খান।

দ্য রিং
ইমতিয়াজ আলির ট্র্যাভেলগ দেখতে সব সময়ই মুখিয়ে থাকেন দর্শক। প্রথমবার শাহরুখ খান-ইমতিয়াজ আলির রসায়ন কী রকম হতে চলেছে, তা নিয়েও কৌতূহল রয়েছেই। ছবিতে শাহরুখ ট্যুর গাইড। অতএব তাঁর হাত ধরে প্রাগ, আমস্টারডাম, বুদাপেস্টে মানস-ভ্রমণের অভিজ্ঞতাটা মন্দ হবে না!

জগ্গা জাসুস
অনেক টালবাহানার পর আগামী এপ্রিলে মুক্তির সময় ঠিক হয়েছে ‘জগ্গা জাসুস’এর। অনুরাগ বসু আহ্বান জানিয়েই রেখেছেন— ‘এন্টার দ্য ওয়ার্ল্ড অফ জগ্গা’! ট্রেলারে রণবীর ক্যাটরিনাকে দেখে নড়েচড়ে বসেছেন দর্শক। ‘ডিজনি’ আর অনুরাগের হাতযশে কী ম্যাজিক তৈরি হয়, দেখতে ব্যগ্র আমজনতা।

কাবিল
জোরকদমে প্রচার চালাচ্ছেন নির্মাতারা। এক দৃষ্টিহীনের বদলা নেওয়ার গল্প নিয়ে সঞ্জয় গুপ্তের ‘কাবিল’ আসছে বছরের শুরুতেই। ‘রইস’এর সঙ্গে একই দিনে রিলিজ নিয়ে তরজাও জারি। প্রতিবন্ধকতা নিয়ে হৃতিক রোশন যখনই পরদায় আসেন, দর্শকের ভালবাসা পেয়ে থাকেন! এবারও কি অন্যথা হবে?

টাইগার জিন্দা হ্যায়
টাইগারের প্রত্যাবর্তন! অনেক বছর পর আবার সলমন-ক্যাটরিনা জুটি। আলি আব্বাস জাফর এখন থেকেই ভরসা দিচ্ছেন, ছবি নাকি ব্লকবাস্টার হবেই! ‘এক থা টাইগার’এর পূর্বানুবৃত্তি নয়, বরং নতুন গল্প নিয়ে আসছেন পরিচালক। সলমনের পাশাপাশি ধুন্ধুমার অ্যাকশন করতে দেখা যাবে ক্যাটরিনা কাইফকেও। যদিও তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে অনেকটা।

বাহুবলী: দ্য কনক্লুশন
প্রথম ছবিটা ‘এপিক’এর তকমা পেয়ে গিয়েছিল প্রায়! বক্স অফিসও কাঁপিয়ে দিয়েছিল। কাজেই ‘বাহুবলী..’র সিক্যুয়েল নিয়েও প্রত্যাশা তুঙ্গে। ২০০ কোটির বাজেট নিয়ে এবার কী কামাল দেখান এস এস রাজামৌলি, সেটা নিয়ে আগ্রহ বিস্তর। এদিকে ছবির ‘বাহুবলী’ প্রভাস আগের মতোই ফাটিয়ে চেহারা বানাচ্ছেন। তার জন্য রোজ ব্রেকফাস্টে ৪০টা হাফ-বয়েল্‌ড এগ হোয়াইট খেতে হয়েছে তাঁকে। তাহলেই ভাবুন, কী হতে চলেছে ব্যাপারখানা!

সিমরন
‘আলিগ়়়ড়’, ‘শাহিদ’এর পর হনসল মেটার উপর ভরসা করাই যায়। তার উপর হনসলের এবারের বাজি কঙ্গনা রানাউতের মতো অভিনেত্রী। ছবিতে যিনি প্রফুল পটেল! এক সাধারণ নার্সের ব্যাঙ্ক লুঠ করার চমকপ্রদ অথচ সত্যি ঘটনা নিয়েই তৈরি হচ্ছে ‘সিমরন’। আশায় দর্শক!

২.০
বছরের শেষের দিকে আবির্ভূত হবেন ‘দ্য রজনীকান্ত’! অক্টোবরে ‘২.০’ নিয়ে আসছেন তিনি। আর ছবি যখন থালাইভার, বাজেটের ব্যাপারে ৪০০ কোটির নীচে কথাই নেই! রজনীকান্তের বিপরীতে অক্ষয় কুমার দাঁত-নখ বার করা ভয়ঙ্কর ভিলেনের ভূমিকায়। অন্তত ছবির ফার্স্ট লুক’টা তো ভয় পাওয়ানোর মতোই! দর্শক তৈরি তো?