সংবাদ শিরোনাম

খালেদা জিয়ার সিটি স্ক্যানের রিপোর্ট নিয়ে যা বললেন চিকিৎসক২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেন কাদের মির্জাটাঙ্গাইলে ভন্ড পুরুষ কবিরাজ নারী সেজে যুবককে বিয়ে! অতঃপর…ব্যক্তিগত কাজে সরকারি গাড়ি নিয়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার ঢাকা ভ্রমণ!শেরপুরের সেই শিশু রোকনের পরিবারের পাশে ইউএনও!কক্সবাজারে অস্ত্রসহ ডাকাতি মামলার আসামি গ্রেফতারকক্সবাজারে অনুপ্রবেশকারীর পক্ষ না নেয়ায়, আ’লীগ সভাপতিকে অব্যাহতি!শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি সিএনজি’র মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ১রমজান মাসে আলেমদের হয়রানি মেনে নেয়া যায় না: নুরুল ইসলাম জিহাদীখালেদা জিয়াকে পাকিস্তান-জাপান দূতের চিঠি

  • আজ ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দীর্ঘ সাড়ে ১০ ঘন্টা পর শিমুলিয়া ও কাওড়াকান্দি নৌরুটে ফেরী চলাচল শুরু

১২:০০ অপরাহ্ন | সোমবার, জানুয়ারী ২, ২০১৭ ঢাকা, দেশের খবর

মোঃ রুবেল ইসলাম, মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: ফের ঘন কুয়াশার কারণে শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে সাড়ে ১০ ঘন্টা ফেরী সার্ভিস বন্ধ ছিল। গতকাল রবিবার ১১টা থেকে আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ফেরী, লঞ্চ, স্পীডবোটসহ সকল নৌচলাচল বন্ধ থাকে।

un

পরবর্তীতে কুয়াশা কেটে গেলে দীর্ঘ সাড়ে ১০ ঘন্টা পর শিমুলিয়া ও কাওড়াকান্দি থেকে পুনরায় নৌরুটে ফেরী চলাচল শুরু হয়। এদিকে ঘন কুয়াশার কারণে দুর্ঘটনা এড়াতে মাঝপদ্মার একাধিক পয়েন্টে পণ্যবাহী ট্রাক ও যাত্রীবাহী যানাহন নিয়ে সংসদ সদস্য বাহা উদ্দিন নাসিমের বহনকারী ফেরী ক্যামেলিয়াসহ মোট ৯টি ফেরী নোঙরে ছিল। অপরদিকে ফুললোড অবস্থায় যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে শিমুলিয়া ফেরীঘাটে ১টি ও কাওড়াকান্দি ঘাটে ১টি ফেরীসহ মোট ২টি ফেরী পন্টুনে ভেড়ানো থাকে। এতে করে সকালে শিমুলিয়া ফেরীঘাটে প্রায় সাড়ে ৩ শত যানবাহন পারপারের অপেক্ষায় থাকায় প্রচন্ড শীতের মধ্যে নৌরুটের মাঝ পদ্মায় ও ঘাটে ঘাটে চরম দুর্ভোগে পড়েন দক্ষিণবঙ্গের যাত্রীরা।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সকালে শিমুলিয়া ঘাটে আড়াই শত পণ্যবাহী ট্রাকসহ সব মিলিয়ে সাড়ে ৩ শত যানবাহন পারপারের অপেক্ষায় রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বিআইডব্লিউটিসির সহকারী ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) জসীম উদ্দিন। বিআইডব্লিউটিসির সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েকদিন ধরে ঘন কুয়াশায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়ছে শিমুলিয়া কাওড়াকান্দি নৌরুটের নৌচলাচল। এতে করে চরম বিঘ্নিত হচ্ছে এ রুটের ফেরী, লঞ্চ, স্পীডবোটসহ সকল নৌচলাচল। প্রকৃতির কাছে অসহায় পদ্মা পারাপারের যাত্রীরা যেন নিত্য দুর্ভোগের সঙ্গী। এদিকে শনিবার নৌরুটে দীর্ঘ পোনে ৭ ঘন্টা, শুক্রবার দীর্ঘ ৯ ঘন্টাসহ প্রায় প্রতিদিনই ফেরী সার্ভিস বন্ধ ছিল। এতে করে ফেরীঘাটে নিত্য যানজটে ঘন্টার পর ঘন্টা পদ্মা পারাপারের যাত্রীরা প্রচন্ড শীতের মধ্যে নৌরুটের মাঝপদ্মায় ও ঘাটে ঘাটে চরম দুর্ভোগে পড়ছেন।

শিমুলিয়া বিআইডব্লিউটিসির মেরিন অফিসার মোঃ শাজাহান ও ফেরী মাষ্টার আবদুর রউফ সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, রবিবার দিবাগত ১১টা থেকে আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত ফেরী সার্ভিস বন্ধ ছিল। নৌরুটের পুরো এলাকা ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। এ সময় ফেরী চালকেরা নৌরুটের ১ ফুট অদূরেও দিক-মার্কা ও সিগন্যাল বীকন বাতি নির্ণয় করতে পারছে না। তাই দুর্ঘটনা এড়াতে এ সময় ফেরী চলাচল বন্ধ রাখা হয়। পরবর্তীতে কুয়াশা কেটে গেলে পুনরায় নৌরুটে ফেরী চলাচল শুরু হয়।