সংবাদ শিরোনাম

‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চায়ের স্টলে ইতালি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যাগোবিন্দগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দূঘর্টনায় স্কুল শিক্ষকসহ একই পরিবারের ৪ জন নিহতময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদের পানিতে ডুবে মারা গেলো ৩ শিশুমুহুর্তেই ভয়াবহ আগুন! স্কুলেই পুড়ে মরলো ২০ শিশু শিক্ষার্থী!সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু আর নেইসব রেকর্ড ভেঙে চুরমার, একদিনেই ৯৬ জনের মৃত্যু

  • আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কালিয়াকৈরে এইচ এস সি পরীক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু

৬:৪০ অপরাহ্ন | সোমবার, জানুয়ারী ২, ২০১৭ ঢাকা, দেশের খবর

আলমগীর হোসেন, কালিয়াকৈর প্রতিনিধি: গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার হাবিবপুর এলাকায় চাদনী আক্তার (১৬) নামে এইচ এস সি পরীক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। চান্দনীর মৃত্যুর পর লাশ ফেলে মা ও মায়ের দ্বিতীয় স্বামী (সৎ বাবা) পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে এলাকাবাসী কৌশলে তাদের আটকে রাখে।

mirtu

আজ সোমবার বিকেলে থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছেন। কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মুক্তি মাহমুদ লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত চাদনী ফরিদপুরের বোয়ালমারী থানার তেলজুরী গ্রামের মিলু শেখের মেয়ে। সে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রাস্থ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু সরকারী কলেজ থেকে মানবিক বিভাগে ২০১৭ সালের এইচ এস সি পরীক্ষার্থী।

এলাকাবাসী জানান, ৬/৭ বছর আগে বেলাল হোসেন তার স্ত্রী জোসনা বেগমকে নিয়ে হাবিবপুর এলাকায় বনের জমিতে বসতি ঘর তুলেন। বছর দুইয়েক আগে বেলাল হোসেন চাদনীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করলে জোসনা কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। তখন এলাকাবাসী জানতে পারে চাদনী জোসনার প্রথম ঘরের সন্তান। পরে স্থানীয় ভাবে বিষয়টি মীমাংসা করা হয়। কিছুদিন আগে স্থানীয় শাকিল নামে এক যুবকের সাথে চান্দনীর প্রেমের সর্ম্পক হয়। এনিয়ে চাদনীর সাথে তিন/চারদিন যাবৎ মায়ের ঝগড়া চলছিল।

চাদনীর মা জোসনা বেগম জানান, আজ সোমবার সকাল ৯ টার দিকে এইচএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে মেয়েকে বকাঝকা করেন। এক পর্যায়ে চাদনী তার পড়ার ঘরে আড়ার সাথে ওরনা পেচিয়ে আত্মহত্যা করে। এক পর্যায়ে জোসনা বেগম ও তার ছেলে ঘরের ভিতরে গিয়ে তাকে নিচে নামিয়ে হাসপাতালে নেয়ার চেষ্টা করে। ঘর থেকে বের করার সাথে সাথেই তার মৃত্যু হয়। ঘটনার পর থেকে জোসনা বেগমের স্বামী বেলাল হোসেন ও চাদনীর প্রেমিক শাকিল হোসেন পলাতক রয়েছেন।

এলাকাবাসী আজিজুল হক, সেলিম হোসেন, নুরুল ইসলামসহ অনেকই বলেছেন, চাদনী মারা যাওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসী তাদের বাড়ী যায়। এলাকাবাসীর উপস্থিতি টের পেয়ে লাশ ফেলে বাড়ীর সবাই পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এলাকাবাসী তাদের কৌশলে বাড়ীতে ডেকে আনলেও এক পর্যায়ে বেলাল পালিয়ে যায়। পুলিশ এলাকাবাসীর খবরের ভিত্তিতে থানা পুলিশ আজ সোমবার বিকেল ৪ টার দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

কালিয়াকৈর থানার (ওসি) তদন্ত মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, থানা একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে ঘটনাটি হত্যা না আত্মহত্যা।