সংবাদ শিরোনাম

ভাঙ্গায় রাতের আঁধারে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর-লুটপাট : আহত-১৫বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধেমহাসড়ক যানশূন্য, শিমুলিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ‘তালা ভেঙ্গে মসজিদে তারাবি পড়ার চেষ্টা্’‌, পুলিশের বাধায় সংঘর্ষে মুসল্লিরা‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চায়ের স্টলে ইতালি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যাগোবিন্দগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দূঘর্টনায় স্কুল শিক্ষকসহ একই পরিবারের ৪ জন নিহত

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ধর্মীয় ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ! অবশেষে গ্রেফতার করা হলো সেই তান্ত্রিক সাধুকে

৭:১৫ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৩, ২০১৭ অপরাধ, স্পট লাইট

অপরাধ ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর – ভন্ড এক ‘তান্ত্রিক বাবা’! দিনের পর দিন চলছিল তার কুকীর্তি। নানা ধর্মীয় ভয় দেখিয়ে নারীদের ধর্ষণ করাই ছিল তার উদ্দেশ্য। সেই ধর্ষণ মোবাইলে MMS করতো লুকিয়ে, যাতে পরে ব্ল্যাকমেইল করতে পারে। অবশেষে গ্রেফতার করা হয় সেই তান্ত্রিক সাধুকে। ভারতের এলাহাবাদের ওই তান্ত্রিক আপাতত কারাগারে রয়েছে।

তান্ত্রিককে জেরা করে জানা গেছে, ২০০৮ সালে এলাহাবাদে একটি ঘর ভাড়া করে সে নোংরামি শুরু করে। জগদীশবাবা নামে ওই তান্ত্রিক দাবি করত, তন্ত্র সাধনার সাহায্যে যে কোন সমস্যার সমাধান তার কাছে আছে। বহু সমস্যায় জর্জরিত মানুষ তার কাছে যেতেন। কিন্তু তার পর যা ঘটত, তা নির্মম। কোন নারী তার কাছে এলে, ওই নারীর সঙ্গে থাকা বাড়ির লোককে বাইরে বসতে বলতেন ওই তান্ত্রিক। আর বলতেন, ‘আমি ভিতরে শারীরিক পরীক্ষা করব। শক্তিশালী মন্ত্রে দীক্ষা দেব। ‘

sadhu-baba

সরল বিশ্বাসে বহু মানুষ তা করত। তান্ত্রিকের মোবাইলে পাওয়া কিছু MMS-এ দেখা গেছে, এরপর ঘরে ঢুকিয়ে ওই নারীর কাপড় সরিয়ে সে বলত, শারীরিক পরীক্ষা করা হচ্ছে। এই ভাবে নানা ধর্মীয় ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করা হত। পুলিশের কাছে যাওয়ার কথা বললেই ওই MMS ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার ভয় দেখাতো তান্ত্রিক। শুরু করত ব্ল্যাকমেলও।