• আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আলু’র বাম্পার ফলনের পরেও বিপাকে কৃষক !

১০:২৮ পূর্বাহ্ন | বুধবার, জানুয়ারী ৪, ২০১৭ আলোচিত বাংলাদেশ, দেশের খবর, রংপুর, স্পট লাইট

শাহ্ আলম শাহী,স্টাফ রিপোর্টার,দিনাজপুর থেকেঃ

উত্তরের শষ্য ভান্ডার দিনাজপুরে এবার আগাম আলু’র বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু আলু তুলে বিক্রি করে ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায কৃষক পড়েছেন বিপাকে। অন্যদিকে ঋণ করে আলু চাষীরা পাওনাদারদের ভয়ে অনেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। আলু বিক্রি করে চাষীদের উঠছেনা উৎপাদন খরচ।

গত বছর আগাম আলুর বাজার মূল্য ভালো পাওয়ায় এবার দ্বিগুন জমিতে আগাম জাতের আলুর চাষ করেছেন অনেক কৃষক । ফলনও পেয়েছেন ভালো। বেশ খোস মেজাজেই ছিলেন আলু চাষীরা। কিন্তু আলু’র ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায বিপাকে পড়েছেন তারা।

দক্ষিণ কোতয়ালীর উলিপুর গ্রামের কৃষক রফিকুল ইসলাম সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানিয়েছেন,ঋণ করে আলু চাষ করে এখন আলু’র দাম না পাওয়ায় চাষীরা পাওনাদারদের ভয়ে অনেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। আলু বিক্রি করে চাষীদের উঠছেনা উৎপাদন খরচ।

জেলার চাহিদা মিটিয়ে বাইরে যাচ্ছে আলু। এর পর দাম পাচ্ছেনা কৃষক। ৮ থেকে ৯ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছেন আলু। চাষাবাদে খরচ বেশী হওয়ায় উৎপাদিত আলু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষক।দর কমে যাওয়ায় ফলন ভাল পেলেও হতাশ তারা।

dinajpur-farmer-by-somoyerkonthosor

দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক গোলাম মোস্তফা সময়ের কণ্ঠস্বরকে  জানান,লাভ জনক ফসল হওয়ায় জেলায় এবার ৪৩ হাজার হেক্টর জমিতে আলু চাষাবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু চাষ হয়েছে, ৪৭ হাজার ৯’শ হেক্টর জমিতে। এর মধ্যে লক্ষ্যমাত্রার অর্ধেক হয়েছে আগাম আলু চাষ।

আগাম জাতের আলু চাষাবাদ করে বাম্পার ফলন পেয়েছেন এ অঞ্চলের কৃষক। কিন্তু আলু’র ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন তারা। এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে আগামীতে এ অঞ্চলে আগাম জাতের আলু চাষাবাদ ব্যাহত হওয়ার আশংকা করছেন কৃষিবিদরা।