সংবাদ শিরোনাম

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্তরোহিঙ্গা শিশু অপহরণের পর হত্যার ঘটনায় নারীসহ দু’জন গ্রেপ্তারবেলকুচিতে দূর্বৃত্তদের আগুনে পুড়ে গেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান !জামালপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার মাদ্রাসার শিক্ষক‘করোনাকালের নারী নেতৃত্ব: গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব’বগুড়ায় শিক্ষা প্রনোদনা পেতে প্রত্যয়নের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগজামালপুরে ধর্ষণ মামলায় ধর্ষকের যাবজ্জীবনপাবনায় অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান, চারটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার-২উপজেলা আ.লীগের সভাপতিকে ‘পেটালেন’ কাদের মির্জা!কে কত বড় নেতা, সবাইকে আমি চিনি: কাদের মির্জা

  • আজ ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মিয়ানমারের ‘সবচাইতে খ্যাতনামা’ মুসলিম ব্যক্তিত্ব কে গুলি করে হত্যা

২:২৪ পূর্বাহ্ন | সোমবার, জানুয়ারী ৩০, ২০১৭ Breaking News, আন্তর্জাতিক, স্পট লাইট

আন্তর্জাতিক আপডেট ডেস্ক –

মিয়ানমারের শীর্ষস্থানীয় মুসলিম আইনজীবী কো নি আততায়ীর গুলিতে নিহত হয়েছেন। দেশটির ইয়াংগুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার পার্কিংয়ের সামনে মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনি নিহত হন। এ ঘটনায় একজন ট্যাক্সি চালকও নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদ মাধ্যম ।

আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা বিবিসি জানিয়েছে,  নিহত কো নি ছিলেন মিয়ানমারের সবচাইতে খ্যাতনামা মুসলিম ব্যক্তিত্ব। কো নি বর্তমানে  অং সান সু চি’র নেতৃত্বাধীন ক্ষমতাসীন দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) আইনি পরামর্শক হিসেবেও নিযুক্ত ছিলেন।

দেশটির পুলিশের বরাত দিয়ে ডেইলি মিয়ানমার টাইমস জানিয়েছে, কো নির হত্যাকাণ্ডে সন্দেহভাজন কাই লিন নামে ৫৩ বছর বয়সী এক আততায়ীকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে দেশটির পুলিশ।

ko-ni-death-miyanmar

স্থানীয় সংবাদ সূত্রে জানা যায়, ২১ সদস্যের প্রতিনিধি দলের অন্যতম সদস্য হিসেবে মিয়ানমারের তথ্যমন্ত্রী পি মিন্টের নেতৃত্বে ইন্দোনেশিয়া সফর শেষে দেশে ফেরার পরই এ ঘটনা ঘটে।

বিমান বন্দরে কার পার্কিংয়ের সামনে তাকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ইন্দোনেশিয়ায় বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে জাতীয়ভাবে বিরোধ মেটানোর অভিজ্ঞতা জানতে সরকারি কর্মকর্তা ও মুসলিম নেতাদের প্রতিনিধি দলটি ইন্দোনেশিয়া সফরে গিয়েছিল।

নিহত কো নি   ছাত্র অবস্থায় বিক্ষোভ করতে গিয়ে ১৯৮৮ সালে জেলেও গিয়েছিলেন। এরপর থেকেই তার উত্থানের শুরু। সময়ের পরিক্রমায় তিনি একজন আইনজীবী হিসেবে খ্যাতি লাভ করেন। পরে সূ চি’র দল এনএলডি’র আইনি পরামর্শক হিসেবে নিয়োগ পান।