• আজ ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রায়পুরাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি একটি সেতু!

৪:৫০ অপরাহ্ন | সোমবার, জানুয়ারী ৩০, ২০১৭ ঢাকা, দেশের খবর, স্পট লাইট

স্টাফ রিপোর্টার, নরসিংদী: এক সময় সন্ধ্যা হলেই যেখানে এলাকার লোকজন যেতে ভয় পেত, সেখানে এখন পার্ক হওয়ায় প্রতিনিয়ত সমাগম হয় হাজার হাজার মানুষের। মেঘনা নদীর তীরে আনন্দ পার্ক গড়ে উঠায় দিনের আলো অস্তমিত হওয়ার সাথে সাথে এখানে লাল-নীল বাতির আলোতে তৈরি হয় এক অনাবিল পরিবেশ।img_142904492

মেঘনার উপর একটি সেতু নির্মিত হলে পাল্টে যাবে নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার পান্থশালা ও সাইদাবাদ ঘাটসহ চরাঞ্চলের ৬টি ইউনিয়নের চিত্র।

স্থানীয় এমপি রাজি উদ্দীন আহমেদ রাজু এ এলাকার মানুষের পাড়াপাড়ের কথা চিন্তা করে প্রথমে ফেরির ব্যবস্থা করে দেন। পরে দুর্গম চরাঞ্চলের মানুষের কথা চিন্তা করে ১৩ কিলোমিটার দীর্ঘ একটি পাকা রাস্তা নির্মাণ হওয়ায় এলাকার মানুষের জীবন ব্যবস্থা। ‘রাজি উদ্দিন আহম্মেদ রাজু’ নামে তৈরি হয় একটি কর্টেজ। তারপরই এই পার্ক, দোকানপাট, ঘর বাড়ি। বর্তমানে লোকে লোকারণ্য থাকে এই পান্থশালা। রায়পুরা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান চৌধুরী বলেন, মেঘনার ঐ পাড়ের পাড়াতলীতে রয়েছে কবি শামসুর রহমানের পৈত্রিক বাড়িসহ গুণীজনদের বাস। তাছাড়া নরসিংদী জেলার ৩ ভাগের ১ ভাগ যেমন: বেগুন, বাঙ্গী, তরমুজ, ধানসহ বিভিন্ন ধরনের সবজি উৎপাদিত হয়। চরাঞ্চলের কৃষকরা তাদের উৎপাদিত বিভিন্ন সবজি সেতু না থাকায় সঠিক সময়ে রায়পুরাসহ আশেপাশের বাজারে বিক্রি করতে পারছেন না। আর নৌকা করে বিক্রি করতে পারলেও ন্যায্য মূল্য থেকে তারা হয় বঞ্চিত।