• আজ ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

‘নিষিদ্ধ ড্রাগ ছেড়েছি বলে বেঁচে আছি’- ডিয়েগো ম্যারাডোনা


news_picture_41422_maradona1


স্পোর্টস আপডেট ডেস্কঃ

সেই আঁধারের জীবন এখনো আক্ষেপে পুড়িয়ে মারে তাকে। ‘কেন যে এমন করতে গেলাম’ -এই ভেবে হতাশাও ছুঁয়ে যায় ডিয়েগো ম্যারাডোনাকে। এখন মেনে নিয়েছেন নিষিদ্ধ ড্রাগ নেওয়াটাই ছিল জীবনের সবচেয়ে বড় ভুল! আর্জেন্টিনার ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক নিজেই অবাক হন এখনো বেঁচে আছেন ভেবেই।

নিষিদ্ধ মাদক সেবন করতে করতে মৃত্যুর খুব কাছে চলে গিয়েছিলেন ম্যারাডোনা। মাদকাসক্ত সেই অভিশাপের জীবন থেকে ফিরে এসে এখন দিব্যি ভাল আছেন তিনি। সেই জীবন নিয়ে অনুশোচনাও হচ্ছে। তবে নেশার পথ থেকে ফিরে এসে বেশ অনুধাবন হয়েছে তার।

ম্যারাডোনা বলছিলেন, ‘‌ড্রাগ নেওয়া শুরু করি যখন আমার বয়স ২৪ বছর। বার্সেলোনার হয়ে খেলছি। এখন বুঝতে পারি এটাই আমার জীবনের সবথেকে বড় ভুল। মাদকের পথে যাওয়াটা ঠিক হয়নি।’‌

সেই মাদকের ছোবল এক পর্যায়ে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে নিয়ে যায় আর্জেন্টাইন ফুটবল ইশ্বরকে। সেই প্রসঙ্গ মনে করিয়ে দিয়ে ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই ফুটবলার বলেন, ‘‌কোমায় চলে যাওয়ার পর আমার মেয়ে প্রার্থনা করেছিল যেন বেঁচে ফিরি। আমার জীবনে নারী, অর্থ নাকি ড্রাগ, কোনটা বড় সমস্যা?‌ আমি বলব অবশ্যই ড্রাগ, যা মানুষকে খুন করে ফেলে। এখন এই যে আমি আপনাদের সামনে কথা বলছি, সেটা ভাবতেই অবাক হয়ে যাই। যদি তখন ড্রাগের জীবন থেকে না ফিরতাম তবে মরেই যেতাম। গত ১৩ বছর ধরে সেই নেশার দুনিয়াতে আর যাইনি। সত্যি বলতে কী ড্রাগ ছেড়েছি বলে বেঁচে আছি।’‌

◷ ৯:০৬ অপরাহ্ন ৷ সোমবার, জানুয়ারী ৩০, ২০১৭ খেলা