বশেমুরবিপ্রবিতে লোক প্রশাসন বিভাগের সাংস্কৃতিক সপ্তাহ অনুষ্ঠিত

১:১৯ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৩১, ২০১৭ শিক্ষাঙ্গন

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও লোক প্রশাসন বিভাগ আয়োজন করল ‘সাংস্কৃতিক সপ্তাহ-২০১৭’।

evening

২৫ জানুয়ারি থেকে ২৯ জানুয়ারি পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে। “বিতর্ক প্রতিযোগিতা, উপস্থিত বক্তৃতা, রচনাসহ নতুন কিছু চিন্তা করে নতুন জ্ঞানের সৃষ্টি করা”- এই ৪ টি বিষয় নিয়ে- ‘আন্তঃবর্ষ প্রতিযোগিতা’। শিক্ষার্থীরা ব্যক্তিগত ও বিভিন্ন গ্রুপে নিজ নিজ মেধার পরিচয় দিয়েছে। ফুঁটিয়ে তুলেছে যার যার নিজস্ব চিন্তা-চেতনাকে নিয়েছে নতুন কিছু জন্ম দেবার প্রশান্তি।

৩০ জানুয়ারি বেলা ৩ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্যারেজ এ আন্তঃবর্ষ বিতর্ক প্রতিযোগিতা, বিকেল ৫ টায় জমকালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এ অতিথিবৃন্দ, আমন্ত্রিত শিক্ষকগণের জীবনের দিক-নির্দেশনামূলক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার মধ্য দিয়ে শুরু হয় সাংস্কৃতিক সপ্তাহ এর ২য় ও শেষ পর্ব। আবৃত্তি, নাচ, কৌতুক, গান পরিবেশন সহ সাংস্কৃতিক বিভিন্ন কর্মকান্ড অনুষ্ঠিত হয়। এই ‘সাংস্কৃতিক সপ্তাহর মধ্য দিয়ে ১৭-১৮ সেশনের নতুন মুখগুলোকে বরণ করে নিলো বিভাগের আর ৩ টি বর্ষের শিক্ষার্থীরা। রাত ১১ টা পর্যন্ত চলা এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান বিভূতি সরকার, ইংরেজী বিভাগের প্রভাষক হাবিবুর রহমান, লোকপ্রশাসন বিভাগের প্রভাষক মিজানুর রহমান, বিতান খানমসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এ সময় লোকপ্রশাসন বিভাগের প্রভাষক মিজানুর রহমান স্যার এর সমাপ্তি বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শেষ হয় ‘লোক প্রশাসন বিভাগের ২০১৭-এর ‘সাংস্কৃতিক সপ্তাহ’।

“সাংস্কৃতিক সপ্তাহ” সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে লোক প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক মিজানুর রহমান বলেন “শিক্ষার্থীদের কে সাংস্কৃতিক অগ্রসরতা যুক্তি নির্ভর আলোচনা ও সমলাচোনা এবং নতুন চিন্তার উন্মেষ ঘটানোর লক্ষ্যে বৈচিত্রময় ইভেন্টের মাধ্যমে ‘সাংস্কৃতিক সপ্তাহ-২০১৭’ তাদের সার্বিক উন্নয়নে নিসন্দেহে অবদান রাখবে”। লোকপ্রশাসন বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী রিপোর্টার কে জানায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, দেশত্ববোধ, ইতিহাসকে সামনে রেখে ও শিক্ষার্থীদের মাঝে সৃজনশীলতার উন্মেষ ঘটানোর জন্যই আমাদের বিভাগের এই ভিন্নধর্মী সফল আয়োজন আমাদের আয়োজন আমাদের অনুপ্রাণিত করেছে।