নোয়াখালীতে মধ্যযুগিয় কায়দায় স্কুল ছাত্রকে নির্যাতনের প্রতিবাদে মানববন্ধন


মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলা ২নং চরবাটা ইউনিয়নের সওদাগর হাট উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীতে পড়ুয়া অসহায় মেধাবী ছাত্র আবুল খায়ের রুবেল (১৭) কে মধ্যযুগিয় কায়দায় নির্যাতনের প্রতিবাদ ও দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন করে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী।

ahoto-bicar

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় সুবর্ণচর উপজেলা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তরা জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান। পরে সুবর্ণচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হারুন অর রশিদকে একটি লিখিত অভিযোগ জমা দেন।

ঘটনার সূত্রে জানা যায় গত রবিবার রাত ৮টায় ২নং চরবাটা ইউনিয়নের পশ্চিম চরবাটা গ্রামের মৃত আবু তাহের এর পুত্র উক্ত বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্র আবুল খায়ের রুবেলকে তার বাড়ী থেকে দেশীয় অস্ত্রের মুখে তুলে নিয়ে যায় একই ইউনিয়নের মধ্যম চরবাটা গ্রামের কামাল উদ্দিনের পুত্র উপজেলা শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মজনু, খলিল উল্যাহ এর পুত্র নুর মোহাম্মদ ভুট্টু, শুক্কর ব্যাপারী ওরফে শুক্কর মেম্বারের ছেলে মাঈন উদ্দিন, নুর হোসেনের পুত্র ইউনুছ, লাতু ডুবাইওয়ালার পুত্র শিবলু পরে তারা পাশের গ্রামে অবস্থিত তাহের মিয়ার বিক্্র ফিল্ডের পরিত্যাক্ত জায়গায় নিয়ে আরো ৫/৭ জনের অজ্ঞাত ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে রুবেলকে এলোপাতাড়ি পিটাতে থাকে।

একই এলাকার দিনমজুর রবিউল ইসলাম ঘটনাটি দেখে রুবেলকে বাঁচাতে গেলে তাকেও এলোপাতাড়ি পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে চর জব্বার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। রুবেল এবং রবিউল এর পুরো শরিরে অঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ঘটনায় জানাজানি হলে সওদাগর হাট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী মানববন্ধন করে।

এ ব্যাপারে উক্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন সংবাদ প্রকাশ না করতে সংবাদ কর্মীকে প্রকাশ্যে হুমকি দেন। এলাকাবাসী ও ছাত্র-ছাত্রী অভিযোগ করে বলেন, আজ মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মানববন্ধন করতে চাইলে প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেন, ম্যানেজিং কমিটি সভাপতি মাঈন উদ্দিন মানিকের নাম ভাঙ্গিয়ে হুমকি দেন এবং মানববন্ধন করতে নিষেধ করেন। পরে এলাকাবাসী ও শিক্ষার্থীরা সুবর্ণচর উপজেলা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে।

সুবর্ণচর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হারুন অর রশিদ বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি দোষিদের আইননের আওতায় চেষ্টা চলছে। নাম প্রকাশে অইচ্ছুক এলাকাবাসী জানান মজনু, ভুট্টু, ইউনুছ দীর্ঘদিন থেকে এলাকায় ত্রাশের রাজত্র কায়েম করে আসছে এবং নানা অসামাজিক কাজে জড়িত রয়েছেন এতে বাঁধা দিলে রুবেলের উপর হামলা চালায় তারা এবং রুবেলকে চোর সাজিয়ে বিষয়টিকে ভিন্ন খাতে প্রভাহিত করার চেষ্টা করছেন এলাকার একটি প্রভাবশালী ও কুচক্রী মহল।

◷ ২:৪৭ অপরাহ্ন ৷ মঙ্গলবার, জানুয়ারী ৩১, ২০১৭ চট্টগ্রাম, দেশের খবর