• আজ ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পাবনায় ইউপি সদস্যাকে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টার অভিযোগ

৪:২৩ অপরাহ্ন | বুধবার, ফেব্রুয়ারী ১, ২০১৭ দেশের খবর, রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি- পাবনার ভাঙ্গুড়ায় দিলপাশার ইউনিয়নের পুইবিল গ্রামে ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যাকে ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার দিলপাশার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অশোক কুমার ঘোষ অভিযুক্তের পক্ষ নিয়ে সালিশের মাধ্যমে ঐ সদস্যার পরিবারকে বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়ার চেষ্টা করে চাপ প্রয়োগ করেন বলে অভিযোগ উঠছে। এ ঘটনায় আতংকে রয়েছে ঐ সদস্যার পরিবার।

image-18162পরিবারের অভিযোগ, গত ২৬ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার রাতে ইউনিয়নের লক্ষীকোল গ্রামের জেবারত হাজীর ছেলে মিন্টু কাজের উদ্দেশ্যে ওই ইউপি সদস্যার বাড়ীতে যায়। সে সময় বাড়ীর অন্য সদস্যরা বাড়ীতে না থাকায় মিন্টু তাকে একা পেয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে ঐ সদস্যার চিৎকারে এলাকাবাসী এসে মিন্টুকে আটক করে। এ ঘটনায় ঐ সদস্যা থানায় মামলা করতে চাইলে ইউপি চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঘোষ ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম্য আদালতে বিচারের আশ্বাস দিয়ে তাকে মামলা করা থেকে বিরত রাখেন এবং মিন্টুকে ছেড়ে দেন।

পরে চেয়ারম্যান তার পরিষদে ডেকে ঘটনাটি নিয়ে বাড়াবাড়ি না করার জন্য আমাদের পরিবারকে সতর্ক করে দেন। একারণে আমরা বাধ্য হয়ে এখনও চুপচাপ আছি।

ইউপি চেয়ারম্যান অশোক কুমার ঘোষ বলেন, ঘটনার বিচার কাজ শুরু করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মিন্টু দোষী প্রমাণিত হয়েছে। তবে বিচার কাজ শেষ করতে সময় লাগবে। এসময় নির্যাতিত পরিবারের কাছ থেকে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়ার চেষ্টার অভিযোগ অস্বীকার করেন তিনি।

এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, এ ধরনের ঘটনার বিচার করার ক্ষমতা ইউনিয়ন পরিষদের নেই। অভিযোগ পেলে ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।