ঠাকুরগাঁওয়ে বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত

৯:০৯ অপরাহ্ন | বুধবার, ফেব্রুয়ারী ১, ২০১৭ দেশের খবর, রংপুর

কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে বিদ্যার দেবী সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করেন, সরস্বতী বিদ্যা, বাণী ও সুরের অধিষ্ঠাত্রী দেবী।

মাঘ মাসের শুক্লপক্ষের পঞ্চমী তিথিতে সাদা রাজহাঁসে চেপে দেবী সরস্বতী জগতে আসেন। গতকাল বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে প্রতিমা স্থাপন করে পূজার আনুষ্ঠানিকতা সূচনা হয়। তাদের ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী সকালে দেবীকে দুধ, মধু, দই, ঘি, কর্পূর, চন্দন দিয়ে স্নান করানো হবে। এরপর চরণামৃত নেবেন ভক্তরা।

আজ সকাল নয়টার দিকে হয় বাণী অর্চনা। পুরোহিতরা ‘সরস্বতী মহাভাগে বিদ্যে কমল লোচনে/বিশ্বরূপে বিশালাক্ষী বিদ্যংদেহী নমোহস্ততে’এ মন্ত্র উচ্চারণ করে বিদ্যার দেবী সরস্বতীকে আরাধনা করেন, পূজার আচার পালন করেন। এরপর ভক্তরা পুষ্পাঞ্জলি দেন।

unnamedতাদের বিশ্বাস, দেবী খুশি হলে বিদ্যা ও বুদ্ধি অর্জিত হবে। দেবীর সামনে ‘হাতেখড়ি’ দিয়ে শিশুদের বিদ্যাচর্চার সূচনা করা হবে অনেকস্থানে। সন্ধ্যার পর বিভিন্ন পূজা মন্ডপে থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

এদিকে ঠাকুরগাঁও চন্দন কুমার দে,কানন সরকার,অপূর্ব রায় ও সরকারী কলেজের ইংরেজি বিষয়ে পড়–য়া ছাত্র প্রদীপ বর্মন জানান তারা গত ৬ বছর ধরে পূজার আয়োজনে নিজেকে কলেজে বিলিয়ে দিয়েছেন। পূজা উৎসবের সম্পন্ন হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও কেন্দ্রীয় গোবিন্দ জিউ মন্দির প্রাঙ্গন ও শান্তীনগর,আশ্রমপাড়া,কালিবাড়ী,দূর্গাবাড়ী,রোড সহ শহরের বিভিন্ন স্থানে সরস্বতী পূজার আয়োজন করেছে। এখানে সকাল ৭টায় প্রতিমা স্থাপন, ১০টায় পঞ্জিকা অনুযায়ী মন্ত্র পাঠ, সকাল ১১টায় পুষ্পাঞ্জলি প্রদান, বেলা ১টায় প্রসাদ বিতরণ করা হয়, রাতে আলোকসজ্জার আয়োজন করা হয়।

এছাড়া ঠাকুরগাঁও সহ সারা দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তি উদ্যোগেও এ পূজা উদযাপিত হয়। পূজাকে কেন্দ্র করে যেকোন ধরনের অপ্রিতিকর ঘটনা এড়াতে ঠাকুরগাঁও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছিল বাড়তি নিরাপত্তা।