মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন টেলারসন

১২:২৪ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২, ২০১৭ Breaking News, আন্তর্জাতিক, স্পট লাইট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক – অভিবাসন নিয়ে ট্রাম্প প্রশাসনের পদক্ষেপে বিশ্বব্যাপী ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ-বিতর্কের মধ্যেই মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে এক্সন মবিলের সাবেক সিইও রেক্স টিলারন শপথ নিয়েছেন।

স্থানীয় সময় বুধবার সিনেটের সমর্থন পাওয়ার পরই টিলারসন ট্রাম্প প্রশাসনে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ পান।

ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স টিলারসনকে শপথ পাঠ করান।

এর আগে এক্সন মবিলের সাবেক প্রধান নির্বাহী রেক্স টিলারসন ৫৬-৪৩ ভোট পেয়ে মনোনীত হন। তাকে রিপাবলিকান অধিকাংশ সিনেটর সমর্থন করেন আর অধিকাংশ ডেমোক্রেট সিনেটর তার নিয়োগের বিরোধিতা করলেও সমর্থন করেছেন কেউ কেউ।

আন্তর্জাতিক বিশ্বের সঙ্গে সুসম্পর্ক স্থাপন এবং মার্কিনিদের ভাবমূর্তি আরো উজ্জ্বল করতে তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে হোয়াইট হাউজে শপথ অনুষ্ঠানে ট্রাম্প বলেন। এটি অত্যন্ত দুঃখের বিষয় বর্তমান বিশ্ব একটি সংঘাতময় পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। আমরা সংঘর্ষ চাই না। আমরা চাই সুন্দর পৃথিবী।

Sworn-In-as-US-Secretary-of-State-Tillerson

পশ্চিম ভার্জিনিয়ার সিনেটর জু ম্যানসিন, নর্থ ডাকোডার সিনেটর হেইডি হিথকাম্প, ভার্জিনিয়ার সিনেটর মার্ক ওয়ার্নার এ তিন ডেমোক্রেট সিনেটের মেইনের অঙ্গরাজ্যের ইন্ডেপিডেন্ট সিনেটর অঙ্গুস কিংসের সঙ্গে যুক্ত হয়ে টিলারসনকে সমর্থন জানান। তারা রেক্স টিলারসনকে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে কার্যকরি একজন নেতা মনে করেন।

সাধারণত মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পদটি জ্যেষ্ঠ ও অভিজ্ঞ কূটনীতিককেই দেওয়া হয়ে থাকে। কেন না তারা মার্কিন সরকারের পররাষ্ট্র নীতিগত কৌশল নিয়ে কাজ করে থাকেন।

ধনকুবের টিলারসনের কোনো রাজনতৈকি অভিজ্ঞতা নেই। রাশিয়ার সঙ্গে তার সর্ম্পকের বিষয়টিও ব্যাপক পরীক্ষা-নিরীক্ষার মুখে পড়ে।

তবে ব্যবসায়ী হলেও এই পদে টিলারসনের প্রতি পুরো আস্থাই রয়েছে ট্রাম্পের। তিনি জানিয়েছেন, টিলারসনের পেশাগত দক্ষতা আমেরিকার স্বপ্নেরই প্রতিমুর্তি।

এক্সন মবিল কোম্পানির সাবেক এই প্রধান রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি রোসনেফৎ-এর সঙ্গে কয়েক শ’ কোটি ডলারের চুক্তি করে ২০১৩ সালে ভ্লাদিমির পুতিন কর্তৃক ‘র্অডার অব ফ্রেন্ডশিপ’ সম্মানে ভূষিত হয়েছিলেন। এরই মধ্যে তিনি মার্কিন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী শপথ নিলেন।