• আজ ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ভোটের আগের রাতেই ব্যালট বাক্স ভর্তি, প্রিজাইডিং অফিসার গ্রেফতার


টাঙ্গাইল প্রতিনিধি- গত ৩১ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত টাঙ্গাইল-৪ আসনের উপ-নির্বাচনে জাল ভোটারদের ব্যালট পেপারে সিল মারায় সহযোগিতা করার অভিযোগে প্রিজাইডিং অফিসার মাধম চন্দ্র ঘোষকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আটক প্রিজাইডিং অফিসার মাধব চন্দ্র দাস কালিহাতীর শামসুল হক কলেজের সমাজকল্যাণ বিভাগের প্রভাষক।

টাঙ্গাইল জেলা নির্বাচন অফিসার তাজুল ইসলাম জানান, নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে বুধবার বিকালে ওই প্রিজাইডিং অফিসারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়। মামলার পরই কালিহাতী থানা পুলিশ প্রিজাইডিং অফিসারকে গ্রেফতার করে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ৮নং বল্লভ বাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোটগ্রহণের আগের রাত ৩০ জানুয়ারি দুই হাজার ব্যালট পেপারে সিল মেরে ব্যালট বাক্স ভর্তি করে রাখা হয়। পরে ৩১ জানুয়ারি ভোটের দিন সকালে খবর পেয়ে বল্লভবাড়ি কেন্দ্রে গিয়ে এর প্রমাণ পায় জেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম।

এ সময় ওই কেন্দ্রে দায়িত্বে থাকা প্রিজাইডিং অফিসার মাধব চন্দ্র ঘোষের টেবিলের ড্রয়ার থেকে আরও ৯৭৭টি সীল মারা ব্যালট পেপার পাওয়া যায়। জেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম সকালেই ওই কেন্দ্রের ভোট বাতিল বলে ঘোষণা করেন।

বাতিলকৃত কেন্দ্রের ভোটের সংখ্যা ২৭৪৩। বাতিলকৃত ভোটের চেয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর ভোটের ব্যবধান বেশি হওয়ায় তাকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়।

জেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার বলেন, দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিজাইডিং অফিসার মাধব চন্দ্র ঘোষ ব্যালট পেপারগুলো যথাযথভাবে হেফাজতে না রেখে দুষ্কৃতিকারীদের হাতে তুলে দিয়ে সিল দেয়ার সহযোগিতা করেছেন। এতে তিনি গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ ১৯৭২ এর ৮৫ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী শস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। এজন্য কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খ. আখেরুজ্জামান জানান, মাধব চন্দ্র ঘোষকে আদালতের মাধ্যমে রাতেই জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

◷ ৩:১৪ অপরাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২, ২০১৭ ঢাকা, দেশের খবর