সংবাদ শিরোনাম

বাংলাদেশকে তিস্তার পানি না দেয়ার সাফ ঘোষণা মমতারশ্বশুরবাড়ি যাওয়ার আগে কাঁদতে কাঁদতেই মারাই গেলেন কনে!এবার ‘টোকাই’ হয়ে আসছেন হিরো আলমহাসপাতালের ওষুধ পাচারের ছবি তোলায় ১০ সংবাদকর্মী তালাবদ্ধবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ স্বাধীনতার প্রকৃত ঘোষণা: প্রধানমন্ত্রীনির্মাণকাজ শেষের আগেই ‘মডেল মসজিদের’ বিভিন্ন স্থানে ফাটলআহসানউল্লাহ মাস্টারসহ ১০ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান পাচ্ছেন স্বাধীনতা পুরস্কারঐতিহাসিক ৭ মার্চের সুবর্ণ জয়ন্তী: টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মানুষের ঢলচট্টগ্রাম কারাগারে হাজতি নিখোঁজ, জেলার-ডেপুটি জেলার প্রত্যাহারদেবীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

  • আজ ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

অসমাপ্ত বক্তব্য দেয়ার জন্য ফের সময় পেলেন খালেদা, আবেদন নামঞ্জুর

৫:৫৩ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২, ২০১৭ Breaking News, জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর – জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের অসমাপ্ত বক্তব্য দেয়ার জন্য ফের সময় পেলেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এজন্য আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি দিন নির্ধারণ করেছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে বিচারক আবু আহমেদ জমাদার এ আদেশ দেন। জিয়া চ্যারিটেবল ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনের জন্য বিশেষ আদালতে হাজির হন খালেদা জিয়া।

বিচারকের প্রতি অনাস্থা প্রকাশ করে খালেদা জিয়ার করা আবেদন নাকচ করেন দেন আবু আহমেদ জমাদার। বিএনপির চেয়ারপারসন তাঁর আবেদনে ন্যয়বিচার না পাওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেন। আদালত একই সঙ্গে মামলা মুলতবি করার আবেদনও নাকচ করেছেন।

আদালত আদেশে বলেন, এ মামলার অভিযোগ গঠন হয়েছে প্রায় তিন বছর হতে চলল। দুর্নীতি দমন কমিশনের আইন অনুযায়ী ৬০ কার্যদিবসের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তি করতে হয়। মামলার শেষ পর্যায়ে এসে এ ধরনের আবেদনের সুযোগ নেই। তাই আবেদন নামঞ্জুর করা হলো এবং মুলতবি করার আবেদন নাকচ করা হলো।

khaleda-zia-mamla-kharij

এর আগে গত ৩০ জানুয়ারি এই মামলায় খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থনে বক্তব্য উপস্থাপনের দিন ধার্য থাকলেও তিনি বক্তব্য দেননি। তার আইনজীবীরা আরও ২ দিন সময় প্রার্থনা করেন। তারা মামলাটি পুনঃ তদন্তেরও আবেদন জানান। এ সময় খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী আবদুর রেজ্জাক খান আদালতকে বলেন, মামলাটি সঠিকভাবে তদন্ত করা হয়নি। তাই পুনঃ তদন্তের প্রয়োজন রয়েছে। তিনি পুনঃ তদন্তের আবেদনের বিষয়ে বিভিন্ন যুক্তিতর্ক তুলে ধরেন এবং মামলার কার্যক্রম মুলতবি রাখার আবেদন জানান। আদালত আবেদন শুনানির জন্য ২ ফেব্র“য়ারি ধার্য করেন।

এই মামলার আসামি খালেদা জিয়ার বড় ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২৬ জানুয়ারি গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।