ফরিদপুরে মাঠে মাঠে বোরো ও রবি শস্য আবাদে ব্যস্ত কৃষক


হারুন-অর-রশীদ, ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুর জেলার বিভিন্ন অঞ্চল এখন শৈত্য প্রবাহের কবলে। জনজীবনে জেঁকে বসা শীতের বৈরী আবহাওয়ায়ও এ অঞ্চলে বোরো ও রবি শস্য আবাদে ছন্দপতন হয়নি।

cas

তীব্র শীত উপেক্ষা করে আবাদে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা। কনকনে ঠান্ডা আর হিমশীতল পানিতে নেমে কৃষি শ্রমিকরা বোরো ধানের চারা রোপণে ব্যস্ত। বীজতলা থেকে চারা তুলে মাঠে মাঠে ছুটে যাচ্ছেন তারা। জেলার মাঠে মাঠে এখন বোরো আর রবিশস্য আবাদের দৃশ্য চোখে পড়ছে।

শৈত্য প্রবাহের প্রবল দাপটে শহুরে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়লেও গ্রামাঞ্চলে চলছে বোরো ও রবি শস্য আবাদের কর্মযজ্ঞ। সাত সকালে ঘনকুঁয়াশা ভেদ করে কৃষক আর কৃষি শ্রমিকরা ছুটছেন মাঠে। হাড় কাঁপানো ঠান্ডার মধ্যে তৈরী করছেন জমি, রোপণ করছেন চারা। শীতের প্রতিকূল আবহাওয়া তাদের কাবু করতে পারেনি। বরং বোরো ধান ও রবি শস্যের আবাদ শেষ করতে গলদঘর্ম হচ্ছেন তারা।

জানুয়ারি মাস থেকে শুরু হয়েছে বোরো ও রবি শস্য আবাদের মওসুম। মাঠ জুড়ে চলছে জমি তৈরী ও আবাদের ধুম। শত শত কৃষি মজুর সেচ দিয়ে জমির মাটি ভেজাচ্ছেন, কেউবা কাঁদা করে প্রস্তুত করছেন জমি। আবার অনেকে ব্যস্ত রবি শস্য আবাদে। এদের কাছে শীতের বালাই নেই। বোরো ধান ও রবি শস্য আবাদই তাদের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। শীতের বৈরী আবহাওয়ায় ঘর থেকে যেখানে বের হওয়া দুষ্কর তার মধ্যেই কৃষকরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছে আবাদে। ধুমছে আবাদের কাজ চলায় কৃষি শ্রমিকের সংকটও দেখা দিয়েছে গ্রামাঞ্চলে।

দৈনিক ৩০০ টাকা মজুরী দিয়েও মিলছে না কৃষি শ্রমিক। কৃষক হন্যে হয়ে খুঁজছেন কৃষি শ্রমিক। তাদের কদর বেড়ে যাওয়ায় বাড়তি মজুরী দিয়ে কৃষি শ্রমিক নিতে হচ্ছে কৃষকদের।

সরেজমিনে জেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায় – হিমেল ঠান্ডা মাড়িয়ে কৃষি শ্রমিকরা মাঠে ব্যস্ত কাজে। কোন মাঠ পতিত নেই। মাঠ জুড়ে বোরো ধান আবাদের কর্মযজ্ঞ। এ কর্মযজ্ঞের সঙ্গে রবি শস্যের আবাদ ও পরিচর্যা চলছে সমানতালে। বোরোর পাশাপাশি পিয়াজের হালি, গম, সবজির ফসলের পরিচর্যায় কাজ করছেন কৃষি শ্রমিকরা।

কৃষি শ্রমিকরা জানান, মাঠে ব্যাপক হারে বোরো রোপণ শুরু হয়েছে। তীব্র শীতের মধ্যে কাজ করতে হচ্ছে। এতে কষ্ট হলেও এই সময়ের মধ্যে চারা রোপণ শেষ করতে হবে। সময় মত বোরো ধান রোপন না করলে ফলন ভালো হবে না। আবাদের প্রয়োজনে আমরা মাঠে নেমে পড়েছি। এ কাজে মজুরীও মিলছে ভালো।

স্থানীয় এক কৃষি কর্মকর্তা সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানায়, চলতি রবি মওসুমে কৃষকরা ভালো ফলন পেতে বৈরী আবহাওয়ার মধ্যে আবাদে নেমে পড়েছেন। মাঠে কৃষকরা যে গতিতে কাজ করছেন তাতে এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি পরিমাণ জমিতে বোরো ধান ও রবি শস্য আবাদ করবেন বলে মনে হচ্ছে।

◷ ৭:১৪ অপরাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২, ২০১৭ ঢাকা, দেশের খবর