জামালপুরে ছাত্রদের কাঁধে স্কুলের জমিদাতা: পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন

৮:৩০ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২, ২০১৭ আলোচিত বাংলাদেশ

আবদুল লতিফ লায়ন, জামালপুর প্রতিনিধি- মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাঁধে উঠে হেঁটে যাওয়ার ঘটনা নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় চলছে। গত রোববার (২৯ জানুয়ারি) ওই বিদ্যালয়ের এক অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাটি বুধবার বিকাল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে শিক্ষার্থীদের কাঁধের উপর দিয়ে বিদ্যালয়ের জমিদাতার হেঁটে যাওয়ার অমানবিক ঘটনায় সাড়া জেলায় প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। ওই অমানবিক ঘটনার তদন্তে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন থেকে পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই তদন্ত কর্মকর্তারা তাদের তদন্ত কাজও শুরু করেছেন।

kফেইসবুক ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, গত রোববার মাহমুদপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক আব্দুল লতিফ এবং এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায়ী অনুষ্ঠান ছিলো। অনুষ্ঠান উপলক্ষে বিদ্যালয়ের স্কাউট দলের সদস্যরা একটি মানব সেতু নির্মাণ করে। সেই মানব সেতুর উপর দিয়ে হেঁটে যান অনুষ্ঠানের অতিথি এবং বিদ্যালয়ের জমিদাতা দিলদার হুসেন প্রিন্স। এ সময় সেই দৃশ্য দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে উপভোগ করার পাশাপাশি তাকে হেঁটে যেতে সাহায্য করেন ওই বিদ্যালয়ের শরীরচর্চা শিক্ষক হাফিজুর রহমান।

বিদ্যালয়ের স্কাউট সদস্যদের নির্মিত মানব সেতুর উপর দিয়ে কোনো শিক্ষার্থীর পরিবর্তে দিলদার হুসেন প্রিন্সের হেটে যাওয়ার ঘটনাটি স্থানীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। সেই মানব সেতুর উপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার ছবিটি বুধবার সন্ধায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

ছবিতে দেখা যায়, শিশুদের কাঁধে চড়ে হাঁটছেন দিলদার হোসেন প্রিন্স। দুই পাশ থেকে দু’জন তার হাত ধরে সহযোগিতা করছেন। কেউ কেউ সেই দৃশ্যের ছবি তুলছেন। এর চার দিকে বিদ্যালয়ের ছাত্র ও অন্যান্য দর্শনার্থীরা দৃশ্যটি দেখছেন।

এ ব্যাপারে মাহমুদপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আসলত জামান বলেন, সোমবার বিদ্যালয়ে দুটি অনুষ্ঠান একসাথে চলছিলো। স্কাউট সদস্যরা সেদিন তাদের বিভিন্ন শারীরিক কসরত উপস্থান করেছে, সেটার অংশ হিসেবে তাদের তৈরি করা মানব সেতুর উপর দিয়ে বিদ্যালয়ের দাতা সদস্য দিলদার হুসেন প্রিন্স হেঁটে গেছে শুনেছি। তবে ঘটনাটি আমার নজরে আসেনি।

এ ব্যাপারে দিলদার হুসেন প্রিন্স বলেন, বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী স্কাউট সদস্যদের অনুরোধে তাদের তৈরি মানব সেতুর উপর দিয়ে হেঁটে যাওয়ার ঘটনায় দোষের কিছু নেই।

জামালপুরের জেলা প্রশাসক মোঃ শাহাবুদ্দিন খান জানান, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মনিরুজ্জামানকে প্রধান করে ৩ সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোখলেছুর রহমান ও সমাজ সেবক আতিকুর রহমান ছানা। গঠিত তদন্ত কমিটি ৩ দিনের মধ্যে রিপোর্ট প্রদান করবেন। তদন্ত রিপোর্ট পাবার পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মেলান্দহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জন কেনেডি জাম্বিল জানান, এই ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন থেকে ৩ সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির সদস্যরা হলেন, মেলান্দহ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক, সহকারী প্রোগ্রামার ফারুক হোসেন ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ কামরুজ্জামান।

তদন্ত রিপোর্ট পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান জন কেনেডি জাম্বিল।