সংবাদ শিরোনাম

বাংলাদেশকে তিস্তার পানি না দেয়ার সাফ ঘোষণা মমতারশ্বশুরবাড়ি যাওয়ার আগে কাঁদতে কাঁদতেই মারাই গেলেন কনে!এবার ‘টোকাই’ হয়ে আসছেন হিরো আলমহাসপাতালের ওষুধ পাচারের ছবি তোলায় ১০ সংবাদকর্মী তালাবদ্ধবঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ স্বাধীনতার প্রকৃত ঘোষণা: প্রধানমন্ত্রীনির্মাণকাজ শেষের আগেই ‘মডেল মসজিদের’ বিভিন্ন স্থানে ফাটলআহসানউল্লাহ মাস্টারসহ ১০ ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠান পাচ্ছেন স্বাধীনতা পুরস্কারঐতিহাসিক ৭ মার্চের সুবর্ণ জয়ন্তী: টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মানুষের ঢলচট্টগ্রাম কারাগারে হাজতি নিখোঁজ, জেলার-ডেপুটি জেলার প্রত্যাহারদেবীগঞ্জে ট্রাক্টরের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

  • আজ ২৩শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

দৃষ্টিহীন চোখ নিয়ে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে রংপুরের স্নেহা

৩:৫১ অপরাহ্ন | শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ৩, ২০১৭ রংপুর, স্পট লাইট

16443398_409137702763973_577631659_nশাহরিয়ার মিম,রংপুর:

আলোহীন চোখেও রয়েছে অন্তহীন স্বপ্ন। চোখে আলো না থাকলেও মনের চোখ দিয়েই সবকিছু দেখে সে। তাই অদম্য ইচ্ছাশক্তি দিয়ে জয় করে নিতে চায় পৃথিবী। জন্মগতভাবে দু’চোখ অন্ধ। তাই বলে তো আর জীবন থেমে থাকতে পারে না। মনের জোরেই সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করে এগিয়ে যেতে চায় রংপুরের রাধাবল্লভ বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আন্তারা গালিবা স্নেহা।

বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া এসএসসি পরীক্ষায় মানবিক বিভাগ থেকে রংপুর জিলা স্কুল কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছে সে। ক্ষুদ্র কসমেটিকস ব্যবসায়ী সরকার রবিউল হাসান ও গৃহীনি রেনুকা হাসান দম্পতির একমাত্র সন্তান আন্তারা গালিবা স্নেহা। শহরের চেকপোস্ট খলিপাপাড়া এলাকায় তাদের বসবাস। পরীক্ষা শেষে স্নেহা জানায়, মা রেনুকা হাসানের সাহায্যে পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছে। খালাতো বোন জিন্নাতুল জাহানারা পরীক্ষায় তাকে সহায়তা করছে। স্কুলের শিক্ষকরাও তাকে সবসময় উৎসাহ যোগাতেন। স্নেহা জানায়, বড় হয়ে শিক্ষক হতে চায় সে। পরীক্ষার প্রস্তুতি ভালো আছে। আশা করছে আশানুরূপ ফলাফল পাবে সে।

মা রেনুকা হাসান জানান, স্নেহা জেএসসিতে জিপিএ ৩ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছিল। পড়াশোনার প্রতি তার প্রবল ইচ্ছা। নিজের ইচ্ছার জোরে সে আজ এত দূর এসেছে। গানের প্রতিও তার দুর্বলতা রয়েছে। তাই অবসরে গান শেখে স্নেহা। রেনুকা হাসান বলেন, জীবনে প্রতিষ্ঠিত হয়ে সেও দেখিয়ে দিতে চায় প্রতিবন্ধীতা কোন বাঁধাই না তার কাছে। তাই মেয়ের ভবিষ্যৎ ইচ্ছে পূরণে সকলের দোয়া কামনা করেছেন তিনি।