এবার যুক্তরাস্ট্রের বিরুদ্ধে পালটা ব্যবস্থার ঘোষণা ইরানের

১০:৪৬ পূর্বাহ্ন | শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৪, ২০১৭ Breaking News, আন্তর্জাতিক, স্পট লাইট

আন্তর্জাতিক আপডেট ডেস্ক-

চলমান উত্তেজনার মধ্যেই আবরও মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়েছে ইরান। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট ইরানের ১৩ জন ব্যক্তি ও এক ডজন কোম্পানির বিরুদ্ধে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। গত রবিবার ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর শুক্রবার এ নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা আসে যুক্তরাষ্ট্রের দিক থেকে।

যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিরাপত্তা পরিষদে গৃহীত প্রস্তাবনার লঙ্ঘন। আর ইরান বলছে, নতুন এ নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা পরমাণু কর্মসূচি কমানো নিয়ে জাতিসংঘ সমর্থিত চুক্তির স্পষ্ট লঙ্ঘন।

সম্প্রতি মুসলিম প্রধান সাতটি দেশের নাগরিকদের যযুক্তরাস্ট্রে প্রবেশের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নিষেধাজ্ঞা রাখা সাতটি দেশের মধ্যে নতুন করে ইরানের ওপর আরও কিছু বাড়তি নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। একইসাথে ইরানের সমালোচনা করে সতর্ক করেছে সৌদিও।

এদিকে যুক্তরাস্ট্রের সাথে অনেকটা সঙ্গতি রেখেই সৌদি আরবের একজন সিনিয়র সামরিক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল আহমেদ আল আসিরি শুক্রবার বলেছেন, ওই অঞ্চলে ইরানের আচরণ পরিবর্তনের এটাই সময়। তিনি আরও বলেন, ইরাক, সিরিয়া ও ইয়েমেন বিষয়ে ইরানের নাক গলানো বন্ধ করতে হবে।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের এমন নিষেধাজ্ঞা আর সৌদি আরবের দেয়া সতর্কতার ত্রিমুখী চাপের  জবাবে পাল্টা ব্যবস্থার ঘোষণা দিয়েছে ইরান।

যুক্তরাষ্ট্রের এসব নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা  নেবার  ঘোষণা দিয়ে  ট্রাম্পের দিকে ইঙ্গিত করে ইরান বলেছে, একজন অনভিজ্ঞ ব্যক্তির অপ্রয়োজনীয় হুমকির কাছে তারা কোনভাবেই নতি স্বীকার করবে না।

জবাবে তারা সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে, ‘ আগামী কুস্তি বিশ্বকাপে কোনো মার্কিনি ঢুকতে পারবে না ইরানে ‘।

Iran-Vs-Trump

পালটা ব্যবস্থার ঘোষণায় ইরান জানিয়েছে, মাত্র কদিন বাদেই ইরানে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ফ্রি- স্টাইল কুস্তি বিশ্বকাপ। সেখানে অংশগ্রহণ করার কথা ছিলো যুক্তরাষ্ট্রেরও। কিন্তু ডোনাল্ড ট্রাম্প কর্তৃক যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা প্রাপ্তিতে ইরানিদের নিষিদ্ধ হওয়ার পর কঠোর অবস্থান গ্রহণ করলো তেহরান।

প্রসঙ্গত, ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর প্রথম আরোপিত এই নিষেধাজ্ঞায় ১২টি কোম্পানি এবং ইরান ও চীনের ১৩ জন ব্যক্তিকে অন্তর্ভুক্ত করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট। নিষেধাজ্ঞার এই তালিকায় রয়েছে ইরানের রিপাবলিক গার্ডের সদস্যরাও।

ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টের নিষেধাজ্ঞা বিষয়ক ভারপ্রাপ্ত প্রধান জন স্মিথ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘সন্ত্রাসের প্রতি ইরানের ক্রমাগত সমর্থন এবং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির উন্নয়ন ওই অঞ্চলে ও বিশ্বব্যাপী যুক্তরাষ্ট্রের অংশীদারদের প্রতি হুমকি তৈরি করেছে। ‘

এর আগে এক টুইট বার্তায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, ” ইরান আগুন নিয়ে খেলছে। তারা বুঝতে পারেনি প্রেসিডেন্ট ওবামা তাদের প্রতি কত দয়ালু ছিল। আমি নই। “

সম্পর্কিত সংবাদ

স্থগিত হলো যুক্তরাষ্ট্রে সাত মুসলিম দেশের নাগরিক প্রবেশে ট্রাম্পের দেয়া নিষেধাজ্ঞা

যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে আর কোনো বাধা থাকল না নিষেধাজ্ঞায় থাকা সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের