স্থগিত হলো যুক্তরাষ্ট্রে সাত মুসলিম দেশের নাগরিক প্রবেশে ট্রাম্পের দেয়া নিষেধাজ্ঞা


আন্তর্জাতিক আপডেট ডেস্ক-

সাত মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞায় জারিকৃত এক নির্বাহী আদেশে অস্থায়ী স্থগিতাদেশ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের এক ফেডারেল আদালত।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেনডেন্ট খবরটি নিশ্চিত করেছে।

গত ২৭ জানুয়ারি (শুক্রবার) এক নির্বাহী আদেশে তিন মাসের জন্য ৭ মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র প্রবেশে স্থগিতাদেশ দেন নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বলা হয়, এ সাত দেশের নাগরিকরা তিন মাস যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।

এই আদেশে যুক্তরাষ্ট্রে আশ্রয়ের ক্ষেত্রে মুসলিম প্রধান দেশগুলোর মুসলিমদের বদলে খ্রিস্টান ও সংখ্যালঘুদের প্রাধান্য দেওয়ার কথা বলা হয়।

শুক্রবার মার্কিন ড্রিস্টিক্ট বিচারপতি জেমস রবার্ট মুসলিম নিষেধাজ্ঞায় জারি করা করা ট্রাম্পের নিবাহী আদেশে সাময়িক স্থগিতাদেশ দেন। অ্যাটর্নি জেনারেল বব ফার্গুসন ট্রাম্পের এ সংক্রান্ত আদেশকে সংবিধানবিরোধী আখ্যা দিয়েছেন। তার সঙ্গে একমত পোষণ করেন বিচারপতি বরার্টস।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জানুয়ারি (শুক্রবার) নির্বাহী আদেশের প্রথম দিনেই যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরে এবং বিভিন্ন দেশের বিমানবন্দরে হয়রানির শিকার হয় মুসলমানরা। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ শুরু হয়। সংস্কৃতি কর্মীরা এর প্রতিবাদ জানান।

নোবেল বিজয়ী শিক্ষা অধিকারকর্মী থেকে শুরু করে বিভিন্ন দেশের সরকার ও রাষ্ট্রপ্রধান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের প্রতিষ্ঠাতা,বুদ্ধিজীবী ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব ট্রাম্পের এ নিষেধাজ্ঞাকে মুসলিমবিরোধী নিষেধাজ্ঞা হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

উবারের চালকসহ কর্মীদের অনেকে নিজেরাই অভিবাসী। আর এ নিয়ে প্রতিষ্ঠানের কর্মী ও অ্যাক্টিভিস্টদের চাপের মুখে ছিলেন উবারের সিইও ট্রাভিস।

সম্পর্কিত সংবাদ

এবার যুক্তরাস্ট্রের বিরুদ্ধে পালটা ব্যবস্থার ঘোষণা ইরানের

যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে আর কোনো বাধা থাকল না নিষেধাজ্ঞায় থাকা সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের

◷ ৯:৫৮ পূর্বাহ্ন ৷ শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৪, ২০১৭ Breaking News, আন্তর্জাতিক, ফিচার