প্রবাসীদের কাছে ১১ টি দেশ সবচেয়ে নিরাপদ, প্রকাশ হলো সেই তালিকা


প্রবাসের কথা ডেস্ক- নিজ দেশ ছেড়ে কাজের জন্য কিংবা স্থায়ীভাবে বসবাসের ক্ষেত্রে মানুষ ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও সুরক্ষার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে থাকে।

সম্প্রতি বিদেশে বাস করা ও কর্মরতদের সবচেয়ে নেটওয়ার্ক ইন্টারন্যাশনস নামক প্রতিষ্ঠান ব্যক্তিগত নিরাপত্তা ও সুরক্ষার বিষয়ে প্রবাসীদের ওপর একটি জরিপ পরিচালনা করেছে। জরিপের ফল অনুসারে তারা শীর্ষ ১১টি দেশের তালিকা প্রকাশ করেছে।

EXPATওমান-মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশে জীবনযাত্রার ব্যয় অনেক কম। অপরাধ অনেক কম হওয়ার কারণে দেশটি প্রবাসীদের আকর্ষণের কেন্দ্রে রয়েছে।
তাইওয়ান-চাকরির নিশ্চয়তার কারণে দেশটি জনপ্রিয়। বিশেষ করে ক্যারিয়ারের উন্নতির সুযোগ থাকায় তা প্রবাসীদের কাছে বিশ্বের অন্যতম নিরাপদ দেশে পরিণত হয়েছে।
ফিনল্যান্ড-জরিপে অংশ নেয়া দশজনের মধ্যে সাত প্রবাসী জানিয়েছে, ব্যক্তিগত নিরাপত্তাকে তারা এখানে আসার কারণ হিসেবে মনে করেন।
নিউজিল্যান্ড-প্রবাসীদের বিশ্বের অন্যতম শান্তিপূর্ণ দেশ হচ্ছে নিউজিল্যান্ড। দেশটি দু’টি প্রধান দ্বীপের সমন্বয়ে গঠিত।
নরওয়ে-সম্পর্কের খাতিরে অথবা পরিবার নিয়ে আসা প্রবাসীদের কাছে দেশটির নিরাপত্তা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।
সুইজারল্যান্ড-বিশ্বের অন্যতম ধনী এই দেশটিতে অপরাধের হার অনেক কম।
মাল্টা-মাত্র ৪ লাখ বাসিন্দার দেশ মাল্টা ব্রিটিশ প্রবাসীদের কাছে অনেক জনপ্রিয়। কারণ এখানে বাস করার অনুমতি পাওয়া যায় সহজে।
কানাডা-ব্যক্তিগত সুরক্ষা ও নিরাপত্তা সূচকে প্রবাসীরা কানাডাকে তালিকার ওপরের দিকেই রেখেছেন।
জাপান-দেশটিতে দক্ষ শ্রমিকের অনেক চাহিদা। প্রবাসীরা শান্তিপূর্ণ পরিবেশের জন্য দেশটিকে পছন্দের তালিকায় রেখেছেন।
সিঙ্গাপুর-এশিয়ার এই দ্বীপ দেশটি বিশ্বের অন্যতম একটি ধনী রাষ্ট্র। করপোরেট অপরাধের হার অনেক কম এবং ব্যক্তিগত নিরাপত্তার সূচকে দেশটি ভালো অবস্থানে রয়েছে।
লুক্সেমবাগ- দেশটিতে মাত্র ৫ লাখের মতো মানুষের বাস। কিন্তু বিশ্বের মধ্যে এখানেই অপরাধের হার সবচেয়ে কম।

◷ ৮:৪৩ অপরাহ্ন ৷ শনিবার, ফেব্রুয়ারী ৪, ২০১৭ প্রবাসের কথা