শেষ ইচ্ছা পূরণ হচ্ছে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের

৫:২৫ অপরাহ্ন | রবিবার, ফেব্রুয়ারী ৫, ২০১৭ Breaking News, ফিচার, স্পট লাইট

সময়ের কণ্ঠস্বর – শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে চন্দন কাঠের চিতায় দাহ করবেন স্বজনরা। নিজ হাতে রোপণ করা চন্দন গাছের কাঠ দিয়ে দাহ করা হবে তাঁকে।

ইতোমধ্যেই চন্দন গাছটি কাটা হয়েছে এবং কাঠ আকারে বানানো হয়েছে। সোমবার দিরাই এর আনোয়ারপুরে নিজ বাড়ির পাশে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হবে।

সুরঞ্জিতের খালাতো ভাই জয়ন্ত সেন বলেন, তিনি (সুরঞ্জিত) মৃত্যুর আগে বলে গেছেন, যেন তাঁকে চন্দন কাঠ দিয়ে দাহ করা হয়। সে অনুযায়ী, চন্দন কাঠ দিয়েই তাঁকে দাহ করা হবে।

সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার সুজিত রায় বলেন, চৌদ্দ-পনের বছর আগে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত নিজের হাতেই বাড়ির আঙ্গিনায় এই চন্দন গাছটি রোপণ করেছিলেন। যখনই তিনি দিরাই এর এই বাড়িতে যেতেন, নিজের হাতেই গাছটির পরিচর্যা করতেন।

শুধু তাই নয়, সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে একজন বৃক্ষপ্রেমিক উল্লেখ করে তিনি বলেন, তার নিজের হাতে সৃজন করা বাগানে প্রচুর পরিমাণ মেহগনি, সুন্দরী ও সেগুন গাছসহ ফল-ফলাদির গাছ আছে। সময় পেলে সুরঞ্জিত নিজ হাতেই এসব গাছের দেখভাল করতেন।

suronjit chondon

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য এবং সংসদ সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুতে দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগ তিন দিনের শোক ঘোষণা করেছে। এর আগে সকালে দিরাই জগন্নাথ মন্দিরে তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার সকাল নয়টায় তার মরদেহ সিলেটে এসে পৌঁছার কথা। বেলা ১১টায় মরদেহ যাবে সুনামগঞ্জের সাল্লায় নিজ নির্বাচনি এলাকায়। সকাল ১০ টায় সেখানে সর্বস্তরের মানুষ শ্রদ্ধা জানাবেন। পরে মরদেহ দিরাইয়ে তার বাসভবনে আনা হবে। সেখানে আনুষ্ঠানিকতা শেষে আনোয়ারপুরে দাহ করা হবে।

রক্তে হিমোগ্লোবিন স্বল্পতাজনিত অসুস্থতা ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন সুরঞ্জিত। শুক্রবার অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ল্যাব এইডে ভর্তি করা হয়। সন্ধ্যার পর অবস্থার অবনতি হলে তাকে সিসিইউতে নেয়া হয়। পরে অবস্থার আরো অবনতি হলে তাকে লাইফ সাপোর্ট রাখা হয়েছিল।

পরে রবিবার ভোররাত চারটা ২৪ মিনিটের দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুরঞ্জিতকে মৃত ঘোষণা করেন। সকালে হাসপাতাল থেকে সুরঞ্জিতের মরদেহ নেয়া হয় জিগাতলায় তার বাসভবনে। সেখানেই সুরঞ্জিতের এই ইচ্ছার কথা জানা যায়।

মৃত্যুর আগে ভাইকে শেষ ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত

মারা যাওয়ার আগে যা বলে গেছেন সুরঞ্জিত

বাংলাদেশের জন্য সুরঞ্জিতের যে অবদান তা কখনও ভোলার নয় : খালেদা জিয়া

সুরঞ্জিতের মতো অভিজ্ঞ, সৎ ও নিষ্ঠাবান নেতা বিরল: মির্জা ফখরুল

‘বাবার রেখে যাওয়া অসমাপ্ত কাজগুলো আমি শেষ করবো’

জেলে যাওয়ার পর ওই বাড়িতে একাই এসেছিলাম, আজ একাই রয়ে গেলাম : জয়া সেনগুপ্ত

সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুতে শোকবার্তা দিলেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী

সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যু বাংলাদেশের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি: ভারতীয় হাইকমিশনার

suronjit-sengupta-somoyerko