নরসিংদী থেকে ভারতে পাচারকালে তিন কিশোরী উদ্ধার


মো. হৃদয় খান, স্টাফ রিপোর্টার: নরসিংদী থেকে ভারতে পাচারকালে তিন কিশোরীকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধারকৃতরা হল, নরসিংদী জেলা সদর উপজেলার বাসাইল গ্রামের মৃত ফজের আলীর মেয়ে সামিয়া (১৩), তরোয়া ডিসি রোডের সামাদ আলীর মেয়ে অজান্তা (১৭) ও পাচদানা গ্রামের মাসুম বিল্লাহর মেয়ে রুবি খাতুন (১৬)। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন নারীকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়েছে।pic785346y

রবিবার চৌগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আকিকুল ইসলাম স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে চৌগাছা বাসস্ট্যান্ড থেকে তাদেরকে উদ্ধার করেন।

উদ্ধারকৃতরা জানান, তাদের এলাকার জাকির হোসেন নামে এক ব্যক্তি এদেরকে যশোরে ভালো বেতনে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে শুক্রবার রাতে বাসযোগে চৌগাছা শহরের কালীতলার আমির হামজার বাড়িতে নিয়ে আসে। শনিবার সকালে তাদেরকে উপজেলার হিজলী গ্রামের একটি জঙ্গলে রাখা হয়।

সেখান থেকে বাতেনসহ তার একসহযোগী প্রথমে সানিয়াকে নিয়ে যেতে চায়। এসময় তারা একজনকে নিয়ে যেতে বাধা দেয়। এক পর্যায়ে বাতেন ও তার সহযোগীর কথাবার্তা শুনে তারা বুঝতে পারে তাদেরকে ভারতে বিক্রি করে দেয়া হচ্ছে। এ সময় তারা চিৎকার করলে স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে।

রবিবার সকালে থানায় খবর দিলে ১০টার দিকে পুলিশ তাদেরকে উদ্ধার করে। পরে পুলিশ তাদের নিয়ে কালীতলার ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বাড়ির মালিক আমির হামজার স্ত্রী ফুলজান বিবি (৪০) ও তার মেয়ে রিক্তাকে (২৫) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে।

আটক ফুলজান বিবি ও রিক্তা জানান, চৌগাছা উপজেলার হিজলী গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে ইউসুফ শুক্রবার তাদের বাড়ি ভাড়া নেয়। এ তথ্য পেয়ে পুলিশ নুর ইসলামের গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তার স্ত্রী সুকজান বিবিকে আটক করেন। আটককৃতরা সবাই পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (রাত ৯টা) ঘটনার মূল হোতা জাকির ও ইউসুফকে পুলিশ আটক করতে পারেনি।

চৌগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই আকিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, উদ্ধারকৃতদের স্বজনদের জানানো হয়েছে। আর জড়িতদের আটকের চেষ্টা চলছে।

◷ ১১:২৬ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, ফেব্রুয়ারী ৫, ২০১৭ ঢাকা, দেশের খবর, স্পট লাইট