মিশ্রণ নেশায় রাজশাহী জেলার যুবকরা- প্রশাসনের নজদারী নেই

৪:৪৯ অপরাহ্ন | সোমবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০১৭ দেশের খবর, রাজশাহী

dasr


ওবায়দুল ইসলাম রবি, রাজশাহী প্রতিনিধিঃঃ

রাজশাহী মহানগরীতে নেশা করতে ফেন্সিডিল-ইয়াবার বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করছে ডাইডিল মিকচার নামের বিভিন্ন ওষুধ দিয়ে তৈরি এক ধরণের মিশ্রণ। ফেন্সিডিল, ইয়াবাসহ অন্য মাদকদ্রব্যের দাম বেশি হওয়ায় নিম্ন আয়ের যুবকরা ট্যাবলেট ইফটিন, সেডিল, ক্যাপসুল বি-৫, সিরাপ বি-৫০ ফেনারগান, ট্যাবলেট ইলেক্ট্রো, সিরাপ ফেনারডেল ও সিরাপ ওয়াককপ দিয়ে তৈরি মিশ্রণ নেশা করতে ব্যবহার করছে।

এতে করে যুব সমাজ ধ্বংসের দিকে চলে যাচ্ছে। রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় এ ধরণের মিশ্রণ ব্যবহার করে নেশা করছে নিম্ন আয়ের পরিবারের যুবকরা। এ মিশ্রণ একদিকে আসক্ত হয়ে যাওয়া যুবকদের শারিরীক ক্ষতি করছে অন্যদিকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে যুব সমাজকে। এই মিশ্রণটি ট্রাক-বাস ড্রাইভারদের থেকে যুবকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। এই নেশায় আসক্ত হয়ে পড়েছে ১৫-২০ বছরের যুবকরা।

এই মিশ্রণটি ম্যাংগো জুসের মধ্যে মিশিয়ে বিকল্প হিসেবে খাচ্ছে। মিশ্রনটি খাওয়ার পরে চোখে কম, কিডনি, ফুসফুস, জিন নিনোসহ বিভিন্ন রোগ দেখা দিতে পারে বলেছেন চিকিৎসকরা। রাজশাহী জেলায় এই নেশার প্রবণতা বেড়েছে, বাস টার্মিনাল, শিরোইল ট্রন স্টেশন, হাজরাপুকুর, ভদ্রা, নওদাপাড়া, গুড়িপাড়াসহ শহরের বিভিন্ন জায়গা।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান খান বাদশা বলেন, এই মিশ্রণটি খাওয়ার পরে সাথে সাথে মৃত্যু অথবা শারীরিক ক্ষতি হবে। এই সাথে কিডনি, হার্ট, ব্রেন, শ্রীতি শক্তি এবং চেহারা নষ্ট হয়ে যাবে। এখন এধরনের রোগী হাসপাতালে আসছে।

এ বিষয়ে নগর পুলিশের মুখপাত্র ও সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (সদর) ইফতেখায়ের আলম বলেন, বিষয়টি আমাদের জানা নেই। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। সেই সাথে এর সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় নিয়ে আনা হবে।