অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনকে নিরাপদ রাখতে করণীয়…

৬:১০ অপরাহ্ন | সোমবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০১৭ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি


news_picture_41791_android_smartphone1প্রযুক্তি ডেস্কঃ

স্মার্টফোন ছাড়া আধুনিক জীবন ভাবাই যায় না। হাতের মুঠোয় ইন্টারনেটের পাশাপাশি কেনাকাটা, বুকিং, ব্যাংকিং সবই করা যাচ্ছে স্মার্টফোনেই। আর তাই বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্যে সংরক্ষিত রাখতে হয় স্মার্টফোনেই।

কিন্তু আপনার গুরুত্বপূর্ণ স্মার্টফোনের নূন্যতম সুরক্ষা সম্বন্ধে কি আপনি সচেতন? এর সুরক্ষা কঠিন কিছু নয়। নিচের বিষয়গুলি নিয়ে সচেতন হলে নূন্যতম সুরক্ষা সম্ভব হবে।

অ্যাপে থাকুক পাসওয়ার্ড: শুধু ফোনে নয়, দরকারি অ্যাপেও থাকুক পাসওয়ার্ড। হোয়াটসঅ্যাপ বা ফেসবুক মেসেঞ্জারের মতো নিয়মিত যে অ্যাপগুলো আপনি ব্যবহার করেন সেগুলোকে পাসওয়ার্ড প্রোটেক্টেড রাখুন। ব্যাংকিং বা পেমেন্ট সংক্রান্ত কয়েকটি অ্যাপে ইনবিল্ট পাসওয়ার্ড থাকে, অন্যথায় কোনো থার্ড পার্টি অ্যাপ ব্যবহার করেও ‘লক’ করে রাখতে পারেন।

ডাউনলোডের আগে সাবধান: গুগল প্লে স্টোরের মতো কোনো বিশ্বাসযোগ্য সাইট থেকেই অ্যাপ ডাউনলোড করুন। অবশ্যই প্রাইভেসি পলিসি চেক করে অ্যাপ ডাউনলোড করুন।

অ্যাপ পারমিশন এড়িয়ে যাবেন না: অনেকেই অ্যাপ পারমিশন মন দিয়ে পড়েন না। কোনো অ্যাপ ডাউনলোড করে ‘রান’ করানোর আগে দেখুন অ্যাপটি আপনার ফোনে কোন কোন পারমিশন চাইছে।

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার ডাউনলোড করতে ভুলবেন না: স্মার্টফোন হারিয়ে গেলে খুঁজে পেতে সাহায্য করবে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ম্যানেজার। তাই এই দরকারি অ্যাপটি স্মার্টফোনে ডাউনলোড করতে ভুলবেন না।

গুগল অথেনটিকেশন ব্যবহার করুন: গুগলের অ্যাপে টু স্টেপ ভেরিফিকেশন চালু করুন। এর ফলে আপনার জি-মেইলের পাসওয়ার্ড জানলেও কেউ আপনার অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন না। অন্য কেউ আপনার গুগল অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে চাইলে আপনার ফোনে মেসেজ চলে আসবে।

পাবলিক ওয়াই-ফাই এড়িয়ে চলুন: পাবলিক ওয়াই-ফাই কখনই ১০০% নিরাপদ নয়। তাই রেলস্টেশনে বা শপিংমলে পাবলিক ওয়াই-ফাই এড়িয়ে চলুন। কিংবা প্রয়োজন শেষে ওয়াই-ফাই ‘অফ’ করে দিন।

ব্লুটুথ নিয়েও সাবধান: ওয়াই-ফাইয়ের মতোই ব্লুটুথও কাজ শেষে বন্ধ করে দিন। কারণ, ব্লু-টুথের মাধ্যমেও আপনি হ্যাকারদের টার্গেট হতে পারেন।

ফোনে রাখুন অ্যান্টি-ভাইরাস অ্যাপ: স্মার্টফোনে একটি অ্যান্টি-ভাইরাস অ্যাপ ব্যবহার করুন। ম্যালওয়্যার থেকে সুরক্ষা দিতে অনেক ফ্রি অ্যান্টি-ভাইরাস অ্যাপ রয়েছে। বেশি সুরক্ষা নিশ্চিতে অ্যান্টি-ভাইরাস অ্যাপ কিনে ফেলতে পারেন।