দুপুরের আগেই বন্ধ হয়ে যাচ্ছে চারঘাটের প্রায় শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান

৩:৩৯ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ৭, ২০১৭ দেশের খবর, রাজশাহী

ওবায়দুল ইসলাম রবি, রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর চারঘাট উপজেলার সরকারি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো শিক্ষামন্ত্রনালয়ের আদেশ আমান্য করে পরিচালিত হচ্ছে। যা সরকারের শতভাগ শিক্ষা বাস্তবায়ন উদ্দেশ্য ব্যাহত হচ্ছে।

charghat-mapসরকারি নির্দেশ মতে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান (সাপ্তহিক ছুটি ব্যতীত) প্রতিদিন ৬ ঘণ্টা শ্রেণীকক্ষে পাঠদান কার্যক্রম পরিচালনা করার কথা থাকলেও স্কুল কর্তৃপক্ষ তা মানছে না। বছরের শুরুতে ভর্তির ওজুহাতে এবং ফেব্রুয়ারি মাসে এসএসসি পরীক্ষার অজুহাতে প্রায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সকাল ১০ টায় খুলে দুপুর ১টার পুর্বে বন্ধ করে দিচ্ছে। অনুসন্ধানে উপজেলার মুক্তারপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষকসহ সকল শিক্ষক ছাত্র-ছাত্রী দুপুর ১টার পর্বেই নিজ উদ্দেশ্যে চলেগেছেন বলে জানান আফিস সহকারী মকবুল।

এবিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক অফিসার শিরীন মাহাবুবা এবং সহকারী শিক্ষা অফিসার আবুল কালাম আজাদ বলেন, মাধ্যমিক শিক্ষা অধীদপ্তর থেকে প্রতিনিয়িত মনিটরিং করা হচ্ছে কিন্ত স্কুল কর্তৃপক্ষ নিদৃষ্ট সময়ের আগেয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিচ্ছেন।

কিন্ত এ সুযোগে শিক্ষকগন ব্যাপকভাবে কোচিং, প্রাইভেট বাণিজ্যে উৎসবে মেতে উছেছেন। প্রতিষ্ঠানে শ্রেণীকক্ষে ছাত্র-ছাত্রী না থাকলেও কিংবা কম থাকলেও কোচিং সেন্টার, প্রাইভেট হোমগুলোতে উপচেপড়া ভিড়। যার কারণে অভিভাবকদের প্রতি মাসে ২ থেকে ৩ হাজার টাকা অতিরিক্ত ব্যয় হচ্ছে। কিন্ত রিকশাচালক, ভ্যানচালক, শ্রমিক, দিনমজুর হোটেল শ্রমিকসহ নি¤œ আয়ের অভিভাবকেরা পড়েছেন মহাবিপদে।

রাজশাহী জেলা শিক্ষা অফিসার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রতিদিন প্রতিষ্ঠানের সময় হবে সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত কোনোভাবে এর ব্যতিক্রম ঘটানো যাবে না। যেসব প্রতিষ্ঠান সরকারি নির্দেশ আমান্য করে দুপুরের পূর্বে প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিচ্ছেন তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে কঠোর ব্যবস্থাগ্রহণ করা হবে।