মা থাকতেও চার বছর বয়স থেকে কুকুরের দুধ পান করে এই শিশু!, নৈপথ্যে কি?


আন্তর্জাতিক ডেস্ক- মাতৃস্তন্য শিশুর জন্য অমৃত। এ বিষয়টি নিয়ে বিশ্বের কোথাও মত-বিরোধ নেই। সকলেই জানেন, এই মাতৃস্তন্য সুধা ভিন্ন শিশুর জীবন অচল।

মাতা সন্তানের জন্মদান করেন, সেই সাথে তার প্রাণরক্ষার জন্যে সুধাও দান করেন। প্রকৃতিই মাকে এই ক্ষমতা দিয়েছে। মায়েদের এই চিরন্তনী ভূমিকা থেকে কখনও তাদের বিচ্ছিন্ন করা যাবে না। কিন্তু ভারতের ধানবাদের বাসিন্দা ১০ বছরের মোহিত কুমার এই নিয়মের এক আজব ব্যতিক্রম।

dog_কারণ, মানবশিশু হওয়া সত্ত্বেও ছোটবেলা থেকেই রাস্তার কুকুরের স্তন্যপান করা তার অভ্যেস। মোহিতের বাবা সুবেদার সিংহ রাস্তার ধারের একটি খাবার দোকানে কাজ করেন। মা পিঙ্কি কুমারী বাড়ি বাড়ি পরিচারিকার কাজ করেন। তাঁদেরই ছেলে মোহিত চার বছর বয়স থেকেই রাস্তার কুকুরদের দুধ খেতে অভ্যস্ত।

সুবেদার সিংহ জানাচ্ছেন, মোহিতের বয়স যখন বছর চারেক, তখন এক দিন রাস্তার কুকুরদের সঙ্গে খেলতে খেলতে হঠাতই এক সময়ে সে একটি মাদি কুকুরের স্তনে মুখ লাগিয়ে দুধ খেতে শুরু করে। সেই শুরু। তার পর আর সেই অভ্যাস ছাড়েনি মোহিত।

মোহিতের বাবা-মা জানাচ্ছেন, বহু বার নানা ভাবে ছেলেকে বোঝানোর চেষ্টা করেছেন তাঁরা, বকাঝকাও করেছেন, তবুও এই অদ্ভুত অভ্যেস ছাড়তে পারেনি মোহিত। এখনও সে সুযোগ পেলেই মাদি কুকুরদের ধরে জোর করে তাদের দুধ খায়।

কুকুরের দুধ খেতে গিয়ে অনেক বার কুকুরের কামড়ও খেতে হয়েছে মোহিতকে। ডাক্তাররা জানাচ্ছেন, এই অভ্যেসের ফলে শুধু যে মোহিতের স্বাভাবিক বৃদ্ধি ব্যাহত হচ্ছে তা-ই নয়, তার মধ্যে রেবিজের মতো মারাত্মক রোগের আশঙ্কাও বাড়ছে।

ছোট্ট মোহিত অবশ্য সেই সব নিয়ে ভাবতে নারাজ। সে জানাচ্ছে, কুকুরের দুধ খেতে ভাল লাগে বলেই সে এই কাজ করে থাকে।

◷ ৪:৫৩ অপরাহ্ন ৷ বুধবার, ফেব্রুয়ারী ৮, ২০১৭ আন্তর্জাতিক