সংবাদ শিরোনাম

‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চায়ের স্টলে ইতালি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যাগোবিন্দগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দূঘর্টনায় স্কুল শিক্ষকসহ একই পরিবারের ৪ জন নিহতময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদের পানিতে ডুবে মারা গেলো ৩ শিশুমুহুর্তেই ভয়াবহ আগুন! স্কুলেই পুড়ে মরলো ২০ শিশু শিক্ষার্থী!সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু আর নেইসব রেকর্ড ভেঙে চুরমার, একদিনেই ৯৬ জনের মৃত্যু

  • আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

এবার দুনীতির অভিযোগে স্কুলের সভাপতির পদ বাতিল হলো নরসিংদী জেলা পরিষদের সদস্য নাজিরের!

১১:৪৪ পূর্বাহ্ন | মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৭ আলোচিত বাংলাদেশ, ঢাকা, দেশের খবর

মো. হৃদয় খান, স্টাফ রিপোর্টার: এবার দুনীতির অভিযোগে শিবপুর আটাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি মো. নাজিউর রহমানের পদ বাতিল করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের বিদ্যালয় পরিদর্শক এটিএম মইনুল হোসেন স্বাক্ষরিত চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়।image-3121766

নরসিংদী জেলা পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য নাজিউর রহমান নাজির। আট বছর আগে তিনি ছিলেন চা বিক্রেতা। এখন বিপুল সম্পত্তির মালিক। ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়ে পরাজিত হয়েছেন। সম্প্রতি জেলা পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদে জয়ী হয়েছেন।

নিজের পরিবর্তে এক অটোরিকশাচালককে দিয়ে ছিনতাই মামলায় আদালতে হাজিরা ও জেল খাটিয়ে নিজের অপরাধ গোপন রাখতে সক্ষম হন তিনি। মামলা হওয়ার পর নিজের ‘ছিনতাইকারী পরিচয়’ আট বছর ধরে গোপন রাখতে পেরেছেন।

অভিযোগ রয়েছে, দুটি নির্বাচনে তিনি দুই কোটি টাকা খরচ করেছেন। তাঁর এই উত্থানের পেছনে রয়েছে বহু মানুষের কান্না। এমনকি যে ব্যক্তিকে তিনি বদলি জেল খাটান, সেই রিকশাচালকের সঙ্গেও প্রতারণা করেছেন। তাঁকে দেওয়া প্রতিশ্রুতির টাকা দেননি।
উল্লেখ্য, নরসিংদীর শিবপুরে আটাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটি সভাপতি নাজিউর রহমান প্রধান শিক্ষক ও অফিস সহকারী নিয়োগে ব্যাপক করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। অবৈধ নিয়োগ বাতিলের দাবিতে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটি ও নিয়োগ কমিটির সদস্য মো. আবু বক্কর ছিদ্দিক ও আব্দুর রশিদ নরসিংদী জেলা প্রশাসক এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগ করার পরও অজ্ঞাত কারণবশত নিয়োগটি বহাল থাকে।

জানা যায়, আটাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে শূন্যপদে প্রধান শিক্ষক ও নিম্নমান সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর নিয়োগ করা হবে মর্মে ২০১৬ সালের ২৩ মার্চ দৈনিক ইনকিলাব ও দৈনিক গ্রামীণ দর্পণ পত্রিকায় একটি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।
বিজ্ঞপ্তি বলা হয়, ২০১৬ সালের ১১ এপ্রিল সকাল ১০টায় প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ বিদ্যালয়ে উপস্থিত থাকতে হবে। এতে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. নাজিউর রহমানের পছন্দের প্রধান শিক্ষক প্রার্থী মো. মুজাহিদ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে উপস্থিত হতে বিলম্ব হওয়ায়, অজ্ঞাত কারণে পরীক্ষা স্থগিত করে ১৭ এপ্রিল তারিখ পরীক্ষার দিন ধার্য করেন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ওই প্রধান শিক্ষক প্রার্থীর কাছ থেকে আট লাখ টাকা ও অফিস সহকারী প্রার্থীর কাছ থেকে দুই লাখ পঞ্চাশ হাজার টাকা উৎকোচ নিয়ে প্রভাব খাটিয়ে মো. মুজাহিদকে প্রধান শিক্ষক ও শাওনকে অফিস সহকারী হিসেবে নির্বাচিত করে নিয়োগ দেন।
নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছকু নিয়োগ কমিটির এক সদস্য জানায়, বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সকল সদস্যের জোরপূর্বক স্বাক্ষর নিয়ে ৭ এপ্রিল রেজুলেশন পূর্বক ৫ সদস্য বিশিষ্ট একটি নিয়োগ কমিটি গঠন করেন সভাপতি। এতে নিয়োগ কমিটির সভাপতি হন নাজিউর রহমান। বাকি সদস্যরা হলেন সদস্য নরসিংদী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গৌতম মিত্র, শিবপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মাহমুদা আক্তার, আটশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রুপচান মিয়া, ও অভিবাভক সদস্য আবুবক্কর সিদ্দিক।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক অপর এক নিয়োগ কমিটির সদস্য জানান, শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার পূর্বেই নিয়োগ কমিটির সদস্য গৌতম মিত্র ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মাহমুদা আক্তারকে দুই লাখ টাকা প্রদানের মাধ্যমে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র নিয়োগকৃত প্রধান শিক্ষক মুজাহিদ ও অফিস সহকারী শাওনকে দেয়া হয় এবং তাদের দুইজনই পরীক্ষায় প্রথম হয়েছে মর্মে ফলাফল প্রকাশ করেন। এ বিষয়টি বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটিসহ সকল শিক্ষার্থীর মাঝে প্রকাশ পেলে এই নিয়োগ বাতিলের দাবিতে তারা অভিযোগ করেন সংশ্লিষ্ট দফতরসহ জেলা প্রশাসন ও শিবপুর উপজেলা প্রশাসনের কাছে।
অভিযোগের তদন্তে এই নিয়োগটিতে অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার প্রমাণ পাওয়া যায়। তারই ভিত্তিতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় আটাশিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মো. নাজিউর রহমানের পদ বাতিল এবং নতুন সভাপতি নির্বাচনের আদেশ দেন।

আগের সংবাদটি পড়ুন:

নরসিংদী জেলা পরিষদের সদস্য চা বিক্রেতা থেকে এখন কোটিপতি