• আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিনোদ খান্নার মৃত্যুতে ভারতজুড়ে শোক, ছুটে গেলেন অমিতাভ

৪:০১ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৭ বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক- ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ে হেরে বর্ষীয়ান অভিনেতা বিনোদ খান্না মারা গেলেন বৃহস্পতিবার সকালে। মুম্বাইয়ের শ্রী এন এইচ রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ৭০ বছর বয়সে মারা যান বিনোদ খান্না। চলতি মাসের শুরুতেই চরম পানিশূন্যতার কারণে এই একই হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল তাকে।

ওই সময় বিনোদ খান্নার অসুস্থ অবস্থার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোড়ন তোলে। ‘অমর আকবর অ্যান্থনি’ খ্যাত এই অভিনেতার ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার খবর তখনই গণমাধ্যমের নজরে আসে।

1493284829চার ছেলে রাহুল, অক্ষয়, সাক্ষী ও এক মেয়ে শ্রদ্ধা এবং স্ত্রী কবিতা খান্নাকে রেখে গেলেন বিনোদ। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে বলিউডে।

বিনোদ খান্না চলে যাওয়ার খবর পাওয়ার পর ‘সরকার থ্রি’র প্রোমোশনাল ইভেন্ট বাতিল করে হাসপাতালে ছুটে যান অমিতাভ বচ্চন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করেছেন, ‘প্রখ্যাত অভিনেতা এবং বিজেপি সাংসদ বিনোদ খান্নার মৃত্যুতে সমবেদনা জানাচ্ছি।’

আশা ভোঁসলে টুইট করেছেন, ‘খুব খারাপ লাগছে বিনোদ খান্নাজির খবর শুনে। শেষদিন পর্যন্ত একজন তারকা ছিলেন। তার পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইল।’

‘অমর আকবর অ্যান্টনি’তে অমরের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন বিনোদ। সেই কথা মনে রেখে ঋষি কাপূরের টুইট, ‘তোমাকে মিস করব অমর। রেস্ট ইন পিস।’

অনুপম খের লিখেছেন, ‘বিনোদ খান্নাকে ওর লার্জার দ্যান লাইফ পারফরম্যান্সের জন্য মনে রাখব। উনার মতো খুব কম মানুষই আছেন। মিস করব স্যার।’

শত্রুঘ্ন সিন্‌হার টুইট, ‘বিনোদ খান্না সত্যিই আমার আপন ছিলেন। অনেক শ্রদ্ধা করতাম। দারুণ হ্যান্ডসাম ও ট্যালেন্টেড সুপারস্টার আর নেই।’

সত্তর এবং আশির দশকের এই অভিনেতা নেতিবাচক এবং ছোট চরিত্র দিয়ে কেরিয়ার শুরু করলেও ‘মেরে আপনে’, ‘মেরা গাঁও মেরা দেশ’, ‘ইমতিহান’, ‘ইনকার’, ‘অমর আকবর অ্যান্থনি’, ‘লহু কে দো রং’-এর মতো সিনেমা দিয়ে ধীরে ধীরে উঠে আসেন জনপ্রিয়তার শীর্ষে।

কেরিয়ারের শীর্ষে থাকা অবস্থাতেই ১৯৮২ সালে তিনি অভিনয় থেকে বিরতি নেন। ওই সময় তিনি ধর্মগুরু ওশো রজনীশ-এর আশ্রমে পাঁচ বছর থাকেন। এরপর আবারও ফিরে আসেন অভিনয়ে। ওই সময়ই তিনি অভিনয় করেন ‘ইনসাফ’ এবং ‘সত্যমেব জয়তু’র মতো সুপারহিট সিনেমায়।

কেবল অভিনয়েই নয়, রাজনীতিতেও নিজের শক্তিশালী অবস্থান গড়ে ‍তুলতে সক্ষম হয়েছিলেন বিনোদ খান্না। ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি’র হয়ে পাঞ্জাবের গুরুদাসপুর থেকে নির্বাচিত সদস্য হিসেবে লোকসভায় প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি।

তবে রাজনৈতিক ব্যাস্ততার মধ্যেও সিনেমায় অভিনয় বন্ধ করেননি তিনি। কেরিয়ারের শেষ বছরগুলোতে ‘দাবাং’, ‘দাবাং টু’ এবং ‘প্লেয়ার্স’-এর মতো সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। তার অভিনীত সর্বশেষ সিনেমা ‘দিলওয়ালে’ মুক্তি পেয়েছিল ২০১৫ সালে। ‘দিলওয়ালে’র পর থেকেই বিনোদ খান্নার স্বাস্থ্যের অবনতি হতে শুরু করে।