• আজ ২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আগামীকাল জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস

৮:২৫ অপরাহ্ন | বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৭, ২০১৭ তথ্য জাদুঘর

ঢাকাঃ আগামীকাল জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য হলো- ‘বিরোধ হলে শুধু মামলা নয় লিগ্যাল এইড অফিসে আপোষও হয়।’ আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল, সহায়-সম্বলহীন এবং নানাবিধ আর্থ-সামাজিক কারণে বিচার প্রাপ্তিতে অসমর্থ বিচারপ্রার্থীকে সরকারি আইনি সহায়তা কার্যক্রম সম্পর্কে সচেতন করে তুলতে দেশে কাল ৫ম বারের মত জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস পালন করা হবে। এ উপলক্ষে শুক্রবার সকাল ১০টায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে দিবসের অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এছাড়া, তৃণমূল পর্যায়ে সরকারি আইনি সেবার বার্তা পৌঁছে দেয়ার জন্য সারাদেশে লিগ্যাল এইড র‌্যালী, মেলা, পথ নাটিকা, টক-শো, গোল টেবিল বৈঠক, সভা-সেমিনার, মাইকিং ও রক্তদান কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো: আব্দুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী প্রদান করেছেন।

রাষ্ট্রপতি তার বাণীতে বলেন, জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) অন্যতম লক্ষ্য ‘ন্যায়বিচারে প্রবেশাধিকার’। বর্তমান সরকার এসডিজি বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। জনকল্যাণে আইনি সেবার প্রচার ও প্রসারে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থা, সুশীল সমাজ ও গণমাধ্যমসহ বিচার সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষ বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার বাণীতে বলেছেন, সুবিচার পাওয়া প্রতিটি নাগরিকের সাংবিধানিক অধিকার। ধর্ম, বর্ণ, লিঙ্গ, সামাজিক বৈষম্য কিংবা দারিদ্র্যের কারণে কাউকে বিচার প্রাপ্তির অধিকার থেকে বঞ্চিত করা যাবে না।

তিনি বলেন, আজ দেশের বিচার বিভাগ পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করছে। দেশের প্রতিটি নাগরিক আইনের সমান আশ্রয় লাভ করছেন উল্লেখ করে তিনি জনকল্যাণে আইনী সেবা জনগণের কাছে পৌঁছাতে সরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি বার কাউন্সিল, বার এসোসিয়েশনসহ আন্তর্জাতিক সংগঠন, বেসরকারি সংস্থা, সুশীল সমাজ ও গণমাধ্যম আরো বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

জাতীয় আইনগত সহায়তা দিবস উপলক্ষে বুধবার মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ২০০৯ থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত বিগত ৮ বছরে মোট ২ লাখ ৩১ হাজার ৬২৬ জনকে সরকারি আইনি সেবা দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘২০১২ সাল থেকে ২০১৭ পর্যন্ত ১ লাখ ৬৬ হাজার ৩৩৯ জনকে মামলায় আর্থিক সহায়তা এবং কারাগারে আটককৃত ৪০ হাজার ৭১৫ জনকে আইনগত সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া ৬৪ হাজার ৫৪৬টি মামলা নিষ্পত্তি করা হয়েছে।’

আইনমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সদিচ্ছায় আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল, সহায়-সম্বলহীন এবং নানাবিধ আর্থ-সামাজিক কারণে বিচার প্রাপ্তিতে অসমর্থ বিচারপ্রার্থী জনগণকে আইনগত সহায়তা প্রদান কল্পে ‘আইনগত সহায়তা প্রদান আইন, ২০০০’ প্রণীত হয় এবং গঠন করা হয় জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থা।