• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। দুপুর ১:৫১মিঃ

বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে ২ জলদস্যু বাহিনীর আত্মসমর্পণ

⏱ | শনিবার, এপ্রিল ২৯, ২০১৭ 📁 Breaking News, ফিচার

পটুয়াখালী প্রতিনিধি: পটুয়াখালীতে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও গোলাবারুদ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করেছে ‘আলিফ’ ও ‘কবিরাজ’ নামে দুই জলদস্যু বাহিনী। আজ শনিবার বেলা ১১টার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে তারা আত্মসমর্পণ করে।

জানা গেছে, এ উপলক্ষে শহরের শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে র‌্যাব-৮। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে স্বরাষ্টমন্ত্রী মো. আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ও বিশেষ অতিথি হিসেবে র‌্যাবের মহাপরিচালক মোঃ বেনজীর আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

র‌্যাব-৮ পটুয়াখালী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মো. রোকনুজ্জামান জানান, ‘আলিফ ও কবিরাজ বাহিনীর সদস্যরা আত্মসমর্পণ করেছে। তাদের মধ্যে আলিফ বাহিনীর ১৯ জনের ২৫টি অস্ত্র এবং ৮৩২ রাউন্ড গোলাবারুদ আর কবিরাজ বাহিনীর ছয়জনে ছয়টি অস্ত্র এবং ২৭৮ রাউন্ড গোলাবারুদ জমা দিয়েছে।’

এ পর্যন্ত মোট আত্মসমর্পণকারী জলদস্যু বাহিনীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২টি।

মোট আত্মসমর্পণকারী জলদস্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ১৩২ জনে আর এ পর্যন্ত জমা দেওয়া অস্ত্রের মোট সংখ্যা ২৪৭টি এবং গোলাবারুদের মোট সংখ্যা ১২ হাজার ৪৯০ রাউন্ড।

সুন্দরবনের বিভিন্ন নদী ও খালে জেলে ও বনজীবীরা ছিল এই জলদস্যুদের টার্গেট। তাদের অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায় করাই ছিল জলদস্যুদের প্রধান কাজ। র‌্যাব-৮ তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে বিভিন্ন সময়।

র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে এ পর্যন্ত ৯০ জন জলদস্যু নিহত হয়েছে।

এতে জলদস্যুরা ভীত ও কোনঠাসা হয়ে পড়েন। এর একপর্যায়ে জলদস্যুরা আত্মসমর্পণের সিদ্ধান্ত নেয়। সেই ধারাবাহিকতায় আজ আলিফ বাহিনী ও কবিরাজ বাহিনী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করছে।