পহেলা রমজান থেকে মাংস বিক্রি বন্ধ বন্ধের হুমকি

১:১৬ অপরাহ্ন | রবিবার, এপ্রিল ৩০, ২০১৭ Breaking News, আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর- পশুর হাটে অবৈধ চাঁদাবাজি বন্ধসহ চার দফা দাবি আদায়ে রমজানের শুরু থেকে মাংস বিক্রি বন্ধ রাখার হুমকি দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। রোববার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন মাংস ব্যবসায়ী সমিতির মহাসচিব রবিউল আলম এ ঘোষণা দেন।

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

রবিউল আলম বলেন, আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সমস্যার সমাধান না হলে ১ রমজান থেকে সারা দেশের মাংস ব্যবসায়ীরা কর্মবিরতিতে যাবে।

বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ, সমস্যা ও দাবি তুলে ধরেন তিনি বলেন, দেড় বছর ধরে নির্ধারিত খাজনার চেয়ে বেশি অর্থ আদায় করছেন গাবতলী পশুর হাটের ইজারাদাররা। বিদ্যুৎ-পানি-গ্যাস সংযোগ বন্ধ হওয়ায় ট্যানারিগুলোও গরুর চামড়া কেনা কমিয়ে দিয়েছে। পশুর মাংস ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে লুটেরারা কোটি কোটি টাকা লুট করে নিয়ে যাচ্ছে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে গেছে যে, আন্দোলনের বিকল্প নেই।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, দাম বেশি হওয়ায় গরু ও খাসির মাংস খাওয়া ছেড়ে দিয়েছেন সাধারণ মানুষ। ফলে মাংস বিক্রি কমে গেছে। বাংলাদেশে অর্ধেকের বেশি মাংসের দোকান বন্ধ হয়ে গেছে।

তাদের দাবির মধ্যে আছে, খাজনা কমানো, চাঁদাবাজি বন্ধ করা, চামড়া বিক্রির ব্যবস্থা করা, ডিএসসিসিতে স্থায়ী পশুর হাট তৈরি, মানসম্মত একাধিক কসাইখানা তৈরি ইত্যাদি।

সমস্যার সমাধান হলে গরুর মাংস ৩০০ টাকা ও খাসির মাংস ৫০০ টাকা কেজি পাওয়া যাবে বলে জানান রবিউল ইসলাম।