সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৭শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আগামী বাজেটে স্থায়ী করমুক্ত আয়সীমা করতে চান অর্থমন্ত্রী

৪:৪০ পূর্বাহ্ন | সোমবার, মে ১, ২০১৭ জাতীয়

নিউজ ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বরঃ আগামী ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটে ব্যক্তিশ্রেণির করমুক্ত আয়সীমা একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ঠিক করে দিতে চান অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশে বহু বছর ধরে একটি নির্দিষ্ট আয়সীমার ওপরে উঠলেই কর দিতে হয় উল্লেখ করে তিনি বলেছেন, আগামী বাজেটে একটি সীমা ঠিক করা হবে এবং সেটা দীর্ঘস্থায়ী করে দেওয়া হবে।

বাজেট উপলক্ষে আয়োজিত জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ৩৮তম পরামর্শক কমিটির সভায় গতকাল রোববার অর্থমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এনবিআর ও বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি (এফবিসিসিআই) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এ সভার আয়োজন করে। এতে এফবিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে বিভিন্ন বাজেট প্রস্তাব তুলে ধরা হয়। পাশাপাশি বিভিন্ন খাতের ব্যবসায়ীরা তাঁদের প্রস্তাব তুলে ধরেন। শেষে অর্থমন্ত্রী কয়েকটি প্রস্তাব নিয়ে কথা বলেন।

abul mal muhuhit-finense minnister

করমুক্ত আয়সীমা নিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমেরিকায় করমুক্ত আয়সীমা ১০ হাজার ডলার। আমি যুক্তরাষ্ট্রে ১৯৭১ সালে ওই হারে কর দিয়েছি, এরপর ২০০৪ সাল পর্যন্ত একই হারে কর দিয়েছি।’ তিনি বলেন, ‘আমি করমুক্ত আয়সীমা ৪ লাখ করার প্রস্তাবটি এখনো গ্রহণ করিনি। একটা সিদ্ধান্ত এবার দেব, যা ৫০-১০০ বছরের জন্য একই থাকবে।’

এর আগে এফবিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে সংগঠনটির সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ করমুক্ত আয়সীমা সোয়া ৩ লাখ টাকা করা, ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আবুল কাসেম আহমেদ সাড়ে ৩ লাখ টাকা করা এবং নারী উদ্যোক্তাদের চেম্বারের সভাপতি সেলিমা আহমাদ নারীদের করমুক্ত আয়সীমা ৪ লাখ টাকা করার প্রস্তাব দেন।এখন সাধারণ করমুক্ত আয়সীমা আড়াই লাখ টাকা, যা কয়েক বছর ধরে বাড়ানো হচ্ছে না।

সকালে সভাটি শুরু হয় এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মাতলুব আহমাদের বক্তব্য দিয়ে। তিনি বলেন, বর্তমানে অর্থনীতি একটি শক্ত ভিত্তির ওপর দাঁড়ালেও কিছু গুরুত্বপূর্ণ সূচকে নিম্নমুখী প্রবণতা দেখা যাচ্ছে, যা হলো প্রবাসী আয় ও রপ্তানি আয়। এ ছাড়া বিশ্ব অর্থনীতির পরিবর্তিত পরিস্থিতি দেশের অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে বলে উল্লেখ করেন তিনি।